ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬
৩০ °সে


ক্রিকেটের সঙ্গে পাল্লা দিতে চান জেমি

ক্রিকেটের সঙ্গে পাল্লা দিতে চান জেমি
বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব নিশ্চিত করার পর শিষ্যদের সঙ্গে উচ্ছ্বসিত জেমি ডে -ইত্তেফাক

স্পোর্টস ডেস্ক

কোচ জেমি ডে মনে করেন বাংলাদেশে ক্রিকেটকেও ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে ফুটবলের। জাতীয় দলের এই বৃটিশ কোচ অবশ্য লাওসের বিরুদ্ধে দুই পর্ব মিলিয়ে ১-০ জয় নিশ্চিতের আগেই এমন মত দেন।

বাংলাদেশ ফুটবল দল বিশ্বকাপের প্রাক বাছাইয়ে লাওসকে হারিয়ে মূল পর্বে যোগ দেয়। জেমি ডে এটিকে সাফল্য হিসেবেই দেখছেন। তিনি জয়ের এই ধারা ধরে রেখে ফুটবল দলকে দেশের ক্রিকেটের কাছাকাছি জনপ্রিয়তা পাইয়ে দিতে চান ।

দক্ষিণ কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, কম্বোডিয়া এরপর থাইল্যান্ড; এক বছরে এমন সব সূচি যে কোনো ভ্রমণপিয়াসীকে ঈর্ষান্বিত করার জন্য যথেষ্ট। তবে শেষ ১২ মাসে জেমি ডে’র সফরগুলো জাতীয় দলকে বিশ্বকাপ বাছাইসহ আরো সব বহুজাতিক প্রতিযোগিতার জন্য প্রস্তুত করে তোলার লক্ষ্যেই ছিল।

ফলাফলও মিলল হাতেনাতেই। নিজেদের মাঠে সাফ ফুটবলে দারুণ খেলেও প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নেওয়ার পর দলকে বঙ্গবন্ধু কাপের সেমিফাইনাল খেলিয়ে শুরু করেছিলেন ডে। এরপর এশিয়ান গেমসে এশীয় চ্যাম্পিয়ন কাতারকে হারিয়েছিল তার শিষ্যরা। অবশেষে এলো এই বিশ্বকাপ বাছাই নিশ্চিত করা ফলাফল। একে বড় অর্জন হিসেবেই দেখছেন বাংলাদেশ কোচ।

জেমি ডে গত মঙ্গলবার ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘যদি এক বছর আগেও কাউকে জিজ্ঞেস করা হতো যে আমরা বাছাই পর্ব খেলতে পারব কিনা, তবে উত্তরটা নেতিবাচকই আসত। কিন্তু এখন দল সেটা বাস্তবে পরিণত করে দেখিয়েছে এবং এটা বড় এক অর্জনই।’

দেশে ক্রিকেটকে জনপ্রিয় খেলা মানলেও কোচ জানান ফুটবলের পক্ষে তার চেয়েও বেশি জনপ্রিয়তা পাওয়া সম্ভব। সমপ্রতি ব্রিটিশ পত্রিকা গার্ডিয়ানকে দেয়া এক সাক্ষাত্কারে তিনি বলেন, ‘বহির্বিশ্বে বাংলাদেশকে মানুষ ক্রিকেট দিয়েই চেনে। আমাকে ভুল বুঝবেন না, এটা একটা বড় খেলা কিন্তু আমি ফুটবলের সামনে এর চেয়েও বড় হয়ে ওঠার সুযোগ দেখি।’

ব্রিটিশ এই কোচ আরো বলেন, ‘তারা ফুটবলকে ভালোবাসে কিন্তু তারা একে কখনো সফল হতে দেখেনি। আমি বাংলাদেশে হওয়া টি-টোয়েন্টি ম্যাচগুলো দেখতে গিয়েছিলাম যেখানে আমি বিশ-ত্রিশ হাজারের মতো দর্শক দেখেছি। ফুটবলেও আমরা প্রায় কাছাকাছিই দর্শক পাই।’

তবে এজন্যে নিয়মিত ভালো ফুটবল উপহার দেয়াকে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন ডে। ৩৯ বছর বয়সী এই কোচ বলেন, ‘যে কোনো খেলাতেই যদি আপনি জয়ের ধারা ধরে রাখতে পারেন তবে অনেক মানুষ খেলাটি দেখতে উদ্বুদ্ধ হবে এবং অনুসরণ করবে। আমি মনে করি, ফুটবল বাংলাদেশে ক্রিকেটের চেয়েও বেশি জনপ্রিয় কিন্তু এই মুহূর্তে ক্রিকেটের এগিয়ে থাকার কারণটা হচ্ছে এর পেছনে সমর্থন আর পৃষ্ঠপোষকতা থেকে আসা আর্থিক বিনিয়োগ।’

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২০ আগস্ট, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন