ঢাকা বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬
৩২ °সে


পান্তকে উড়িয়ে আনল ভারত

পান্তকে উড়িয়ে আনল ভারত

ধাওয়ানের জন্য সপ্তাহখানেকের অপেক্ষা

স্পোর্টস ডেস্ক

ঋষভ পান্তকে দলে না দেওয়ার জের ধরে বিশ্বকাপের আগে বেশ সরগরম ছিল ভারতের ক্রিকেট মহল। তবে বিশ্বকাপের মাঝপথে এসে কপাল খুলে গেল দিল্লির এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানের। তাকে ইংল্যান্ডে ভারতীয় দলে যোগ দেওয়ার জন্য পাঠিয়ে দিয়েছে বোর্ড অব কনট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)।

সূত্র জানিয়েছে, গতকাল বুধবারেই ইংল্যান্ডের বিমানে চড়েছেন পান্ত। তবে আপাতত বিশ্বকাপ দলে আনুষ্ঠানিক ভাবে নেওয়া হয়নি পান্তকে। তিনি গেছেন ওপেনার শিখর ধাওয়ানের ‘ব্যাক আপ’ হিসেবে। কোনো কারণে ইনজুরি কাটিয়ে ধাওয়ান ফিটনেস ফিরে না পেলে দলে অন্তর্ভুক্ত হয়ে যাবেন পান্ত।

সূত্রটি টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেন, ‘আগেভাগেই ঋষভকেই ব্যাকআপ হিসেবে পাঠানো হয়েছে। তাকে তখনই দলে ঠাঁই দেওয়া হবে যখন আমরা শিখর ধাওয়ানের বাদ পড়ার ব্যাপারে নিশ্চিত হতে পারবো।’

সর্বশেষ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে বড় পারফরমার ছিলেন ধাওয়ান। ম্যাচ চলাকালেই একটা বাউন্সারে বাঁ-হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলে আঘাত পান বাঁ-হাতি এই ব্যাটসম্যান। যদিও পরে মাঠেই ফিজিওর সেবা পেয়ে খেলা চালিয়ে যান, ১০৯ বলে ১১৭ রানের একটা ইনিংসও খেলেন। ভারত ৩৬ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে। তবে ফিল্ডিংয়ের সময় মাঠেই নামেননি তিনি। তার হয়ে ফিল্ডিং করেন রবীন্দ্র জাদেজা। ওই সময় তাকে ড্রেসিংরুমে বাঁ-হাতে আইস-ব্যাগ লাগিয়ে রাখতে দেখা যায়। গেল সোমবার স্ক্যান করার পর তার হাতে চিড় ধরা পড়ে।

বিরাট কোহলিরা চলে গেছেন নটিংহ্যাম। এখানেই আজ বৃহস্পতিবার নিউজিল্যান্ডের মোকাবেলা করবে দু’বারের চ্যাম্পিয়নরা। যদিও দলের সাথে তিনি নটিংহ্যাম যাননি। ফিজিও প্যাট্রিক ফারহার্ট ধাওয়ানের সাথে সব সময় যোগাযোগ রাখছেন। বোঝা যাচ্ছে ধাওয়ানকে সুস্থ করে তুলতে চেষ্টার কোনো কমতি রাখছে না ভারত। তবে সূত্রটির দাবি ধাওয়ানের সেরে উঠতে ১০-১৫ দিন কিংবা তার চেয়েও বেশি সময় লাগতে পারে।

তিনি বলেন, ‘স্ক্যান রিপোর্ট দেখে আমরা নিশ্চিত হয়েছি যে ওর হাতে হেয়ারলাইন ফ্র্যাকচার হয়েছে। ডাক্তাররা ওর সেরে ওঠার ব্যাপারে একটা আনুমানিক সময় নির্ধারণ করেছে। তবে এই জাতীয় ইনজুরির ক্ষেত্রে সেরে ওঠার সময়টা একেকজনের ক্ষেত্রে একেকরকম লাগে। সেক্ষেত্রে ১০-১৫ দিন কিংবা আরো বেশি সময়ও লাগতে পারে। তবে আমরা আরো এক সপ্তাহ ধাওয়ানকে পর্যবেক্ষণ করবো। তারপরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

তবে এটুকু নিশ্চিত যে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ তো বটেই, আগামী ১৬ জুন পাকিস্তানের বিপক্ষে মহারণে ও ২২ জুন আফগানিস্তানের বিপক্ষে থাকছেন না ধাওয়ান। ধাওয়ানের বিকল্প হিসেবে ওপেনিং পজিশনে রোহিত শর্মার সঙ্গী খুঁজে পেতে অবশ্য ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টকে খুব বেশি বেগ পেতে হবে না। কারণ দলের সাথেই আছেন লোকেশ রাহুল। তিনি মূলত ওপেনারই। তবে সমস্যা অন্য জায়গায়। ওপেনার হলেও ‘মেক শিফট’ চার নম্বর ব্যাটসম্যান হিসেবে নিজেকে মানিয়ে নিয়েছিলেন রাহুল। এখন তিনি ওপেন করতে নামলে চার নম্বরে নতুন ভাবে সংগ্রাম করতে হবে ভারতকে। সেক্ষেত্রে হয়তো চারে খেলতে পারেন বিজয় শঙ্কর। কিংবা স্বয়ং মহেন্দ্র সিং ধোনিকে দিয়েও চেষ্টা করা যেতে পারে। ভাবনায় আছেন দিনেশ কার্তিক-হার্দিক পান্ডিয়ারাও। আবার ধাওয়ান পুরোপুরি বাদ পড়ে গেলে ঋষভ পান্তকেও চারে দেখা যেতে পারে।

এদিকে মজার ব্যাপার হল, এক টুইটে ধাওয়ান আভাস দিয়েছেন যে তার বিশ্বকাপ এখনো শেষ হয়নি!

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৬ জুন, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন