ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬
৩১ °সে


আইপিএলের মতো বিশ্বকাপ চান কোহলি

আইপিএলের  মতো বিশ্বকাপ  চান কোহলি

পয়েন্ট তালিকার সেরা দল হওয়া সত্ত্বেও একটা ম্যাচ খারাপ খেলে ছিটকে পড়ল ভারত। আর এটাই সেমিফাইনাল ব্যবস্থার মজা। এখানে একটা খারাপ দিন আপনার পেছনের সব কীর্তি নষ্ট করে দিতে পারে। কিন্তু এই ব্যাপারটা পছন্দ নয় ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির। তিনি বলছেন, সেমিফাইনালের বদলে আইসিসির উচিত আইপিএলের মতো এলিমিনেটর কোয়ালিফায়ারের ব্যবস্থা করা।

সাধারণ সেমিফাইনালে দুটি খেলা হয়—যে হারবে সে বাদ। কিন্তু আইপিএলের কোয়ালিফায়ার এলিমিনেটর ব্যবস্থায় পয়েন্ট তালিকার সেরা দল দুটি দুটো সুযোগ পায় ফাইনাল খেলার জন্য। প্রথমে পয়েন্ট তালিকার সেরা দুই দল প্রথম কোয়ালিফায়ার খেলে। জিতলে সরাসরি ফাইনাল। হারলে আবার তিন ও চার নম্বর দলের মধ্যে জয়ী দলের বিপক্ষে একটা ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে। আর এই ব্যবস্থাকেই সেমিফাইনালের চেয়ে শ্রেয়তর মনে করছেন কোহলি।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম মনে করছে ২০০৭ সালে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে পরাজয়ের পর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এই পরাজয়টাই ভারতের সবচেয়ে খারাপ ফলাফল। সেই বছরের ফলাফলই বিশ্বকাপের সূচিকে বদলে দিয়েছিল। পরের বছর থেকে ২০০৭ সালের মতো প্রথম রাউন্ড আর রাখা হয়নি।

আর মনে করা হয়, মূলত ভারতের কারণেই এবার সবার সঙ্গে সবার খেলার প্রথম রাউন্ড রাখা হয়েছে। এতে ভারতীয় দর্শকরা নিজের দলের ন্যূনতম ৯টা ম্যাচ দেখার সুযোগ পাচ্ছেন। এখন কোহলি বলছেন, পরের বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল নিয়েও পুনর্বিবেচনা করা উচিত।

কোহলিকে সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্ন করা হয়েছিল যে, বিশ্বকাপে আইপিএলের মডেল অনুসরণ করা উচিত কি না। তাতে সেরা দলটা অন্তত একাধিক সুযোগ পাবে। কোহলি উত্তরে বলেন, ‘আমার তাই মনে হয়। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা যদি কোনো অর্থ বহন করে, তাহলে এরকম (আইপিএলের মতো) কিছু করা উচিত। আমার মনে হয়, এই ব্যাপারগুলো বিবেচনা করা উচিত। বিশেষত টুর্নামেন্টের বিশালত্ব মাথায় নিয়ে সেরকম কিছু ভাবা উচিত। এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা পয়েন্ট। আমি জানি না, এটা কবে থেকে কাজে লাগানো হবে। তবে এটা করা উচিত।’

কোহলি বলছিলেন, একটা সেরা দলের একটা ম্যাচ বা ম্যাচের অংশ বিশেষ খারাপ যেতেই পারে। আর তাতেই একটা দলের ভাগ্য লেখা হয়ে যাওয়া উচিত নয়, ‘আপনি পয়েন্ট টেবিলের এক নম্বর দল হিসেবে প্রথম পর্ব শেষ করলেন। এরপর একটা স্পেলে খারাপ ক্রিকেট খেললেন এবং টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে চলে গেলেন। কিন্তু এখন এটাই মেনে নিতে হবে।’ অবশ্য কোহলি মেনে নিয়েছেন যে, ক্রিকেটে আসলে অতীতের সাফল্যের কোনো অর্থ নেই। তিনি বলছিলেন, ‘আগে কী করেছি, তার কোনো অর্থ আসলে নেই। এটা নতুন একটা দিন ছিল। নতুন একটা শুরু ছিল। আপনি ভালো না করলে বিদায় নেবেন। ফলে এটা তো মেনে নিতেই হবে। আমি খুবই হতাশ। কারণ আমরা টুর্নামেন্ট জুড়ে দারুণ ক্রিকেট খেলেছি। কিন্তু ৪৫ মিনিট খারাপ ক্রিকেট খেলে আমরা ছিটকে যাচ্ছি।’

শেষ বেলায় ভারতীয় অধিনায়ক বলছিলেন, তারা এত সুন্দর ক্রিকেট খেলেছেন যে, এভাবে বিদায় নেওয়াটা তাদের প্রাপ্য ছিল না, ‘আমি দুঃখিত এই কারণে যে, আমরা টুর্নামেন্টে যে ধরনের ক্রিকেট খেলেছি, তাতে এমন বিদায় আমাদের প্রাপ্য ছিল না।’

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৭ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন