ঢাকা মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬
২৯ °সে


বিসিবির অর্থায়নে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’

আগামী বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী। তার নামে আমরা বঙ্গবন্ধু বিপিএল চালাব। এবার আমরা কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজিতে যাচ্ছি না। বিপিএলের ম্যানেজমেন্ট বিসিবি। ক্রিকেটারদের খাওয়া-দাওয়া, টাকাপয়সা—সব আমরা দেখব। দলগুলোর মালিকানা সব বিসিবির থাকবে।’
বিসিবির অর্থায়নে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কারণে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসর অনুষ্ঠিত হয়েছে চলতি বছরের শুরুতে। বিসিবির ঘোষণা অনুযায়ী বিপিএলের সপ্তম আসরও আগামী ৬ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়ার কথা। কিন্তু এক বছরে দুটি বিপিএল খেলতে আগ্রহী নয় অনেক ফ্র্যাঞ্চাইজি। বিসিবির সঙ্গে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের চুক্তিও শেষ হয়ে গেছে। গত কয়েক দিন ধরে বিপিএল নিয়ে তৈরি হওয়া সংশয়ের সুযোগটা ভালোভাবেই নিয়েছে বিসিবি।

অনেকটা খোল নলচে বদলে ফেলা হচ্ছে বিপিএলকে। যদিও সেটা আপাতত এই একটি আসরের জন্যই। সপ্তম আসরটা নিজেদের অর্থায়নেই আয়োজন করবে বিসিবি। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী আগামী বছর। বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এবারের বিপিএলের নাম হবে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’। আগামী ডিসেম্বরে মাঠে গড়াবে বিপিএল।

গতকাল মিরপুর স্টেডিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে বঙ্গবন্ধুর নামে বিপিএল করার ঘোষণা দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এই আসরে তাই ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর অংশগ্রহণ কার্যত থাকছেই না। তবে দল সাতটিই থাকছে। দলগুলোর নামও বদলে যেতে পারে। দলগুলোর জন্য স্পনসর নিতে পারে বিসিবি। স্পনসররা চাইলে বিদেশি দামি ক্রিকেটার কিনতে পারবে।

বিসিবির অর্থায়নে হবে বলে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের আর্থিক ক্ষতির বিষয় আর আসছে না। আগের মতোই প্লেয়ার্স ড্রাফট হবে। দল গঠন, ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক পরিশোধ করবে বিসিবি। তারপর পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে আগামী বছর আবার ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সঙ্গে চুক্তিতে যেতে পারে বিসিবি।

গতকাল সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি সভাপতি বলেছেন, ‘আগামী বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী। তার নামে আমরা বঙ্গবন্ধু বিপিএল চালাব। এবার আমরা কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজিতে যাচ্ছি না। বিপিএলের ম্যানেজমেন্ট বিসিবি। ক্রিকেটারদের খাওয়া-দাওয়া, টাকাপয়সা—সব আমরা দেখব। দলগুলোর মালিকানা সব বিসিবির থাকবে।’

দলগুলোর স্পনসর নিতে পারে বিসিবি। নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, ‘যদি কোনো স্পনসর আসে, তার নামে যাবে। প্লেয়ারদের পেমেন্ট সবকিছু বিসিবি করবে। এখনো এটা প্রাইমারি আলাপে আছে। কাল-পরশুর মধ্যে সব ঠিক হয়ে যাবে। আমরা টিম স্পনসর নিতে পারি।’

স্পনসরদেরও দল নিয়ে কাজ করার সুযোগ পাবে। বিসিবি সভাপতি বলেছেন, ‘সব আমরা দেব। তবে যদি টিম স্পনসর নিই, তাহলে তারা কিছু কিছু করতে পারবে। যদি তারা ডাইরেক্ট সাইন করে বিদেশি কিছু খেলোয়াড় আনতে চায়, তারা আনতে পারবে। যদি আরো দামি কোচ আনতে চায়, আনতে পারবে।’

তবে আগের ফ্র্যাঞ্চাইজিদের রেভিনিউ শেয়ারিংয়ের প্রস্তাবে রাজি নয় বিসিবি। গতকাল বোর্ড সভাপতি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ‘রেভিনিউ শেয়ারিং করা সম্ভব নয়। আমাদের ৮০ কোটি টাকা দিক, আমরা ৪০ কোটি দিয়ে দেব। আগে ৮ কোটি টাকা করে নিত। আমরা ৭ কোটি ছেড়েই দিয়েছি। মাত্র ১ কোটি নিচ্ছি। আবার কী চায়?’

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন