ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬
৩৩ °সে


টি-১০ লিগে বাংলা টাইগার্স

টি-১০ লিগে বাংলা টাইগার্স

সুযোগ পেতে পারেন ইমরুল-বিজয়রা

স্পোর্টস রিপোর্টার

টেস্ট, ওয়ানডে, টি-২০—আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখন এই তিন ফরম্যাটই স্বীকৃত। এর বাইরে টি-১০, এমনকি ১০০ বলের টুর্নামেন্ট আয়োজনের খবরও আছে ক্রিকেট দুনিয়ায়। ২০১৭ সাল থেকে আরব আমিরাতে বসছে টি-১০ ক্রিকেট লিগ। ১০ ওভারের ম্যাচের এই লিগের দুটি আসর অনুষ্ঠিত হয়েছে। আগামী ১৫-২৪ নভেম্বর আবুধাবিতে অনুষ্ঠিত হবে টি-১০ লিগের তৃতীয় আসর।

এই প্রথম টি-১০ লিগে খেলবে বাংলাদেশের কোনো দল। ‘বাংলা টাইগার্স’ নামে আগের দুই আসরেও একটি দল খেলেছিল। তবে তৃতীয় আসরে বাংলা টাইগার্স দলটির মালিকানা থাকছে বাংলাদেশিদের হাতে। আয়োজকদের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী ইয়াসিন চৌধুরী ও বিসিবির সাবেক পরিচালক সিরাজউদ্দিন আলমগীর মিলে দলটির স্বত্ব নিয়েছেন। তারা এই দলে রাখতে চান বাংলাদেশিদের আধিক্য। আয়োজকদের অনুমতি নিয়ে বাইরের কোচ বাদ দিয়ে বাংলাদেশি কোচ, সিংহভাগ বাংলাদেশি ক্রিকেটার নিয়ে দল গঠন করতে চান তারা। এরই মধ্যে জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার আফতাব আহমেদকে কোচ, নাজিমউদ্দিনকে সহকারী কোচ ও নাফিস ইকবালকে ম্যানেজার হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন তারা।

টি-১০ লিগ চলাকালীন বাংলাদেশ জাতীয় দল থাকবে ভারত সফরে। তাই জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটারদের পাওয়া যাবে না। জাতীয় দলের বাইরে থাকা পরীক্ষিত ক্রিকেটারদের দলে টানতে চেষ্টা করছে বাংলা টাইগার্স কর্তৃপক্ষ। এরই মধ্যে ইমরুল কায়েস, এনামুল হক বিজয়, আরিফুল হকদের সঙ্গে আলাপ শুরু করেছেন তারা। বোর্ডের ছাড়পত্র লাগবে বলে এখনো কিছুই চূড়ান্ত হয়নি। আগামী ১৬ অক্টোবর লিগের প্লেয়ার্স ড্রাফটের পর ঢাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে সংবাদ সম্মেলনে লোগো ও জার্সি উন্মোচন করবে বাংলা টাইগার্স।

গতকাল সিরাজউদ্দিন আলমগীর এমনটাই জানিয়েছেন। বিপিএলের প্রথম আসরের সদস্য সচিব বলেছেন, শুরু থেকেই টি-১০ লিগ আয়োজকদের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল তার। বিভিন্ন ক্ষেত্রে ছাড় পাওয়ায় এবার দল গঠন সম্ভব হয়েছে।

চট্টগ্রামের এই ক্রীড়া সংগঠক জানিয়েছেন, এফএমসি গ্রুপের চেয়ারম্যান ইয়াসিন চৌধুরী বেশ ক্রিকেট অনুরাগী। চট্টগ্রাম লিগে দুটি দল চালান তিনি। জাহাজ বানানোর ব্যবসা ছাড়াও দুবাইয়ে নিজস্ব কোম্পানি, অফিস রয়েছে তার। ২০০৯ সালে হওয়া পোর্ট সিটি ক্রিকেট লিগে মোহামেডান দলটা তিনিই গঠন করেছিলেন।

দল নেওয়ার প্রসঙ্গে সিরাজউদ্দিন আলমগীর বলেছেন, ‘ওখানে বাংলা টাইগার্স নামে একটা দল আগেই ছিল। আগেও বলেছে, এখন আবার দল গড়তে বলেছে। অনেক কিছুতে আমাকে ছাড় দিয়েছে ওরা। তারপর ইয়াসিনকে বললে সেও রাজি হয়। তারপরই দল নেওয়া।’

আবুধাবির ক্রিকেটকে এগিয়ে নিতে এবার টি-১০ লিগের পুরো দায়িত্ব নিয়েছে আবুধাবি সরকার। বিদেশি কোচ নেওয়ার নিয়ম ছিল। কিন্তু আয়োজকদের কাছ থেকে দেশীয় জনবল ব্যবহারের অনুমতি নিয়েছেন তারা।

বিসিবির সাবেক এই পরিচালক বলেন, ‘ওরা স্বাধীনতা দিয়েছে যে, কোচ-ম্যানেজার আমরা আমাদের মতো করে নিতে পারব। আমরা কোচ হিসেবে আফতাবকে নিয়েছি। তারপর নাফিসের (নাফিস ইকবাল) তো একটা বড়ো অভিজ্ঞতা আছে। কয়েক বছর ধরে বিপিএলে একটা দলের ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছে। সঙ্গে নাজিমকেও (নাজিমউদ্দিন) আমরা সহকারী কোচ হিসেবে রাখছি।’

চূড়ান্ত দলে নয় জন বাংলাদেশি ক্রিকেটার থাকবেন। আর ড্রাফট থেকে পাঁচ জন বিদেশি ক্রিকেটার নেওয়া হবে। যার আয়োজকদের করে দেওয়া নিয়ম অনুযায়ী প্রতি দলে একজন করে ভারতীয় ক্রিকেটার থাকবেন।

ইমরুল-বিজয়দের দলে টানার প্রক্রিয়া চালাচ্ছে বাংলা টাইগার্স। কোচের দায়িত্ব পাওয়া আফতাব আহমেদ গতকাল বিসিবি একাডেমিতে বলেছেন, ‘জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের পাওয়া যাবে না। বোর্ডের ছাড়পত্র লাগবে। এখনো কিছু চূড়ান্ত হয়নি। ইমরুল কায়েস, এনামুল হক বিজয়, আরিফুলদের পাওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।’

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন