‘বিজনেস ফেস্ট বাংলাদেশ-২০২১’ অনুষ্ঠিত

‘বিজনেস ফেস্ট বাংলাদেশ-২০২১’ অনুষ্ঠিত
ছবি: ইত্তেফাক

পুরো ক্যাম্পাসে নেই কোনো কোলাহল, নেই প্রতিযোগিদের আনাগোনা। করোনাকালে এমনই দৃশ্য দেখা যায় রাজধানীর নটরডেমের কলেজে। ব্যবসা-বাণিজ্য সম্পর্কে ধারণা দিতে রাজধানীর নটরডেম কলেজে হয়ে গেলো ১৩ মার্চ থেকে ২০ মার্চ পর্যন্ত আট দিনব্যাপী ‘বিজনেস ফেস্ট’। প্রতিবছরই স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের নিয়ে এমন আয়োজন পরিচালনা করে নটরডেম বিজনেস ক্লাব। এটি তাদের আয়োজিত প্রতিযোগিতার ষষ্ঠ আসর।

নটরডেম কলেজ প্রাঙ্গণে প্রবেশ মুখেই চোখে পড়লো সেচ্ছাসেবকরা হাতে গ্লাভস, মুখে মাস্ক এবং পকেটে স্যানিটাইজার নিয়ে দাড়িয়ে আছে নিজ স্থানে। আয়োজকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেলো প্রথম দিন ৫০ জন এবং শেষের দিন ৮০ জন মানুষের উপস্থিতির অনুমতি পায় কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে। যেমন কথা তেমনই কাজ অডিটোরিয়ামে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রবেশ করা মাত্রই দেখা মিললো গুটিকয়েক মানুষের যারা বিজয়ী হয়েছে তারাই বসে আছে অডিটোরিয়ামে।

সাতদিন ব্যাপী এই আয়োজনের প্রথম দিন উদ্বোধনী এবং শেষের দিন সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয় নটরডেম কলেজ ক্যাম্পাসে। ঢাকাসহ দেশের প্রায় ৩০টি জেলার দুই হাজার প্রতিযোগী অনলাইনে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। এবারের আয়োজনের বেশিরভাগ পর্ব অনুষ্ঠিত হয় অনলাইনে। শিক্ষার্থীদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে এমন সিদ্ধান্ত নেয় আয়োজকরা। বিজনেস অলিম্পিয়াড, ম্যানেজমেন্ট অলিম্পিয়াড, বিজনেস জেনারেল নলেজ অলিম্পিয়াডসহ বিভিন্ন ধরনের অলিম্পিয়াড ছিলো প্রতিযোগিদের অংশগ্রহণ করার জন্য।

একটা বিভাগ ছিলো যেখানে শিক্ষার্থীরা নানান ধরনের স্টার্টআপের আইডিয়া দিয়ে থাকে। এই বিভাগে বিজয়ী হয় বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ পাবলিক কলেজের একদল তরুণ। আরেকটা চমৎকার বিভাগ ছিলো বিজনেস কেস স্টাডি এছাড়াও পোস্টার প্রেজেন্টেশন, সিনেমোটোগ্রাফি, টিভিসি মেকিং, ফটোগ্রাফি, পলিসি ডায়লগ সেগমেন্টে অংশগ্রহণ করে বিভিন্ন শিক্ষার্থীরা৷ উৎসবে ওয়ার্কশপ,অলিম্পিয়াড সহ মোট ১৭টি ইভেন্ট মিলিয়ে ৮৬ জন কে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়৷। বিজয়ীদের ৪০ হাজার টাকা স্কলারশিপ দেওয়া হয় জানায় আয়োজকেরা। বিজনেস রিলেটেড নানান বিষয়ের উপর কর্মশালা নেন মার্কেলটাইন ব্যাংকের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টির আদিল রায়হান সমাপনী অনুষ্ঠানের আগ মুহুর্তে।

আয়োজন সম্পর্কে সভাপতি সামিউল হোসাইন জানান, করোনা মহামারির কারণে আমাদের আয়োজনটা স্বল্প পরিসরে করতে হয়৷ আমাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী সফল ভাবে আয়োজন করতে পেরেছি এটা আনন্দের বিষয়। ঢাকার প্রায় প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেছে। এছাড়া সারা বাংলাদেশ থেকে অসংখ্য শিক্ষার্থী অনলাইনে যুক্ত হয়েছে এটা আমাদের জন্য একটা প্রাপ্তি। আমরা সবসময়ই বলেছি আপনারা ঘরে থাকুন আমরা আছি আপনাদের জন্য। আমাদের বেশ কিছু আয়োজন করার পরিকল্পনা রয়েছে সামনে। আমরা আয়োজন গুলো নিয়ে ভিন্ন রকম পরিকল্পনা করছি৷ তরুণ উদ্যোক্তাদের নানান ভাবে সাহায্য করার জন্য আমরা বেশ কিছু পরিকল্পনা করেছি তা আমরা খুব শিগগিরই সকলের সামনে উপস্থাপন করবো।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x