করোনায় মৃত মুসলমান ও খ্রিস্টানদের প্রত্যন্ত দ্বীপে সমাহিত করবে শ্রীলঙ্কা

করোনায় মৃত মুসলমান ও খ্রিস্টানদের প্রত্যন্ত দ্বীপে সমাহিত করবে শ্রীলঙ্কা
ছবি: ডয়েচে ভেলে

করোনায় মৃত মুসলমান ও খ্রিস্টানদের মরদেহ প্রত্যন্ত একটি দ্বীপে সমাহিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শ্রীলঙ্কা কর্তৃপক্ষ। এর আগে সংখ্যালঘু ধর্মাবলম্বীদের মৃতদেহ পুড়িয়ে ফেলতে বা দাহ করতে বাধ্য করা হলেও বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়ে শ্রীলঙ্কা। উল্লেখ্য, ইসলাম বা খ্রিষ্টান ধর্মে মরদেহ পুড়িয়ে ফেলার কোনো রীতি নেই।

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, মুসলিম ও খ্রিস্টানদের লাশ না পোড়ালেও কবরস্থ করার ক্ষেত্রে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। নিজ এলাকার বদলে ভারত মহাসাগরের মান্নার উপসাগরে ইরানাথিবু নামের একটি দ্বীপে করোনায় মৃত মুসলিম ও খ্রিষ্টানদের কবর দিতে বলা হয়েছে। এই দ্বীপ রাজধানী কলম্বো থেকে ৩০০ কিলোমিটার দূরে। দাফনের জন্য এটিকে নির্বাচিত করার কারণ হিসেবে এর কম ঘনবসতির কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

কলম্বো গেজেট জানিয়েছে, সরকারের মুখপাত্র কেহেলিয়া রামবুকভেলা বলেছেন, মৃতদের কবরস্থ করার জন্য দ্বীপটির এক পাশে একটি জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও জাতিসংঘ এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে আপত্তি তুলেছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের নিরাপদে দাফনের জন্য পর্যাপ্ত গাইডলাইন রয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার। কিন্তু পুড়িয়ে ফেললে সংক্রমণ হবে না এমন কোনো বৈজ্ঞানিক তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি।

ইরানাথিবু দ্বীপের একজন ধর্মযাজক মাধুথিন পাথিনাথার। তিনি জানান, সরকারের সিদ্ধান্তে স্থানীয়রাও কষ্ট পেয়েছে। তার ভাষায়, ‘আমরা এর তীব্র বিরোধিতা করি। এটা স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জন্য ক্ষতিকর হবে।’ তিনি বলেন, ওই দ্বীপে আড়াইশর মতো তামিল বসবাস করে, যারা ৯০ দশকে গৃহযুদ্ধের কারণে বাস্তুচ্যুত হয়েছিল।

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x