‘আলোকিত কোরআন’ চ্যাম্পিয়ন হাফেজ জিহাদুল

‘আলোকিত কোরআন’ চ্যাম্পিয়ন হাফেজ জিহাদুল
ছবি: সংগৃহীত।

বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভির হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা ‘জিপিএইস ইস্পাত আলোকিত কোরআনে’ এবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন হাফেজ জিহাদুল ইসলাম। প্রথম রানার্স আপ হয়েছেন হাফেজ সিয়াম আব্দুল্লাহ। এছাড়া তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম স্থান অর্জন করে হাফেজ আব্দুল্লাহ আল আমের, হাফেজ হোজাইফ আহমেদ, হাফেজ খলিলুর রহমান মোস্তাকিম।

এর আগে দেশের মোট ১৮ টি জোন থেকে অডিশনের মাধ্যমে সেরাদের বাছাই করে ঢাকার তেজগাঁও এ অবস্থিত বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া স্টুডিওতে ফাইনাল অডিশনের মাধ্যমে বাছাই করে সেরা ৩১ প্রতিযোগীদের নিয়ে শুরু হয় মূল রাউন্ড। পুরো আয়োজনে বিচারক হিসেবে সুনিপুণ দক্ষতার সাথে বিচারকার্য সম্পন্ন করেন দেশবরেণ্য ও বিশ্বসেরা হাফেজ ও আলেমগণ। এম শামসুদ্দিন মিঠুর প্রযোজনায় পুরো অনুষ্ঠানটি তত্ত্বাবধান ও পরিচালনা করেছে আরটিভি অনুষ্ঠান বিভাগ।

মাহে রমজান উপলক্ষে মাসব্যাপী আরটিভির ১১তম আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা ‘জি পি এইচ ইস্পাত আলোকিত কোরআন- ২০২১’ প্রতিদিন আরটিভির পর্দায় বিকাল ৫টায় সম্প্রচার চলছে। পূর্বে ধারণকৃত অনুষ্ঠানটির গ্রান্ড ফিনালে প্রচার হয় ১০ মে সোমবার ২৭ রমজান বিকাল ৫টায়।

আরটিভির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক রহমান বলেন, আমরা আনন্দের সাথে ঘোষণা করতে পারি, এই হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আমরা বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে কিছু মেধাবী তেলাওয়াতকারীকে আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরেছি। এ ব্যাপারে আমরা আন্তরিক সহযোগিতা পেয়েছি এদেশের সেরা ক্বারী ও ইসলামী চিন্তাবিদের যারা বিচারকের আসনে বসে বাছাইয়ের কাজটি করেছেন। তাদের প্রতি আমাদের মোবারকবাদ।

গ্রান্ড ফিনালে অনুষ্ঠানে আরটিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ুন কবির বাবলু বলেন, পবিত্র রমজান মাসব্যাপি আরটিভির এই ‘হিফজুল কোরআন’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আমরা অনেক মেধাবী তেলাওয়াতকারীকে আপনাদের সামনে পরিচিত করাতে পেরেছি। আশা করি, এই কোরআনে হাফেজগণ তাদের মেধা দিয়ে সমাজে শুদ্ধ ভাবে কোরআন পাঠ চর্চায় আবদান রাখবেন। তাদেরকে আরটিভির পক্ষ থেকে মোবারকবাদ জানাই।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আমাদের নবী হযরত মোহাম্মদ সাঃ এর মাধ্যমে আমাদের জন্য কোরআন নাযিল করেছেন। সেই কোরআনের হাফেজদের জন্য আরটিভি যে আয়োজন করে যাচ্ছে প্রতি বছর তা সত্যি অত্যন্ত ভালো একটি কাজ।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান বলেন, কোরআনের বাণী মানুষের মাঝে ঝড়িয়ে দেয়াই ছিল নবী হযরত মোহাম্মদ সাঃ এর প্রধান কাজ। সেই কোরআর এর হাফেজদেরকে আরটিভি প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে একত্রিত করেছে এটি নিঃসন্দেহে একটি অসাধারণ উদ্যোগ। এর মাধ্যমে তারা আরো উৎসাহিত হবে এবং কোরআনের বাণী মানুষের মাঝে ছড়িয়ে পড়বে।

জিপিএইচ ইস্পত এর পরিচালক আশরাফুজ্জামান বলেন- আরটিভি বাংলাদেশের প্রথম সারির গণমাধ্যম, আলোকিত কোরআন এতো সুন্দর একটি আয়োজন তারা করে থাকে যা সত্যি অসাধারণ। আমরা আরটিভির সাথে এ অনুষ্ঠানে যুক্ত হতে পেরে নিজেদেরকে ধন্য মনে করছি। বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে কোরআনে হাফেজদেরকে বাছাই করে আজ চূড়ান্ত পর্বে উপনীত হয়েছে। এ প্রতিযোগিতার প্রতিটি সদস্যকে আমাদের পক্ষ থেকে অভিনন্দন।

ইত্তেফাক/বিএএফ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x