বাসায় বসে অনলাইনের কাজে যে ভুলগুলো করবেন না

বাসায় বসে অনলাইনের কাজে যে ভুলগুলো করবেন না
বাসায় বসে অনলাইনের কাজে যে ভুলগুলো করবেন না

আপাতত দেশে জরুরি পরিসেবা ছাড়া বাকিদের বাড়ি থেকে কাজ করতে বলা হয়েছে। বিভিন্ন দেশের মতোই, এদেশের বিভিন্ন রাজ্যেই চালু হয়েছে বাড়ি থেকে কাজের ব্যবস্থা বা (Work From Home)। করোনা ভাইরাসের জেরে ঘরে বসেই কাজ করতে বাধ্য হয়েছেন বহু মানুষ। ঘর-অফিস ভারসাম্য রেখেই চলছে বাসায় বসে কাজ। মনে রাখা প্রয়োজন, এই ভারসাম্য সঠিক না হলে বাড়ি থেকে কাজের অভিজ্ঞতা কিন্তু মোটেও সুখের হবে না। আর একারণেই জরুরি ওয়ার্ক ফ্রম হোমের সময়ে প্রযুক্তিগত সব ধরনের ত্রুটি এড়িয়ে যাওয়া। বাড়ি থেকে কাজ করছেন, পাঠকদের জন্য ৯টি এমনই ত্রুটি নিয়ে আলোচনা।

১. ব্যক্তিগত Google ড্রাইভ বা ইমেল অ্যাকাউন্টে অফিসের কাজ সেভ করে রাখবেন না। অফিসের তথ্য ব্যক্তিগত ড্রাইভ বা ই-মেইলে সেভ করে রাখলে তথ্য ফাঁস হতে পারে। এছাড়াও তথ্য হারিয়ে গেলে পুনরুদ্ধারে অসুবিধা হতে পারে। যা আপনার ক্যারিয়ার ও কোম্পানির জন্য কখনই সুখবর নয়।

২. VPN ছাড়া ওয়ার্ক ফ্রম হোম নয়!

যেহেতু অধিকাংশই বাড়ি থেকে কাজ করছেন, তাই হ্যাকারদের নজরও আপনার বাড়ির নেটওয়ার্কের ওপরই। এমন সময়ে হ্যাকার হানা থেকে বাঁচতে অবশ্যই VPN ব্যবহার করুন।

৩. কাজ না করলে, অফিসের ল্যাপটপ লক করুন! যখন আপনি কাজ করছেন না, এমন সময়ে ল্যাপটপ লক করে রাখতে ভুলবেন না। এতে আপনার তথ্য সুরক্ষিত থাকবে।

৪. একই ইন্টারনেট ব্রাউজারে অফিস ও ব্যক্তিগত কাজ করবেন না। ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহূত ব্রাউজার অফিসের কাজে ব্যবহার না করাই শ্রেয়। কারণ পরবর্তীতে অফিসে যোগ দিলে, আপনার সার্চ-ইতিহাস ভিত্তিতে বিজ্ঞাপন সামনে চলে আসতে পারে।

৫. ওয়ার্ক ফ্রম হোম সম্পর্কিত তথ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করবেন না। বাড়ি থেকে কাজ করা হাইলাইট করে সোশ্যাল মিডিয়ায় তা সম্পর্কিত তথ্য বা ছবি শেয়ার করা উচিত নয়। কঠিন সময়ে ওয়ার্ক ফ্রম হোমের এই সিদ্ধান্ত নেওয়া আপনার সংস্থা হয়তো তা ভালোভাবে নেবে না।

ইত্তেফাক/ এমএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত