ঢাকা মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
৩৩ °সে

জার্মানির রেড ডট ডিজাইন অ্যাওয়ার্ড পেল 'রিয়েলমি এক্স২ প্রো' মাস্টার এডিশন

জার্মানির রেড ডট ডিজাইন অ্যাওয়ার্ড পেল 'রিয়েলমি এক্স২ প্রো' মাস্টার এডিশন
'রিয়েলমি এক্স২ প্রো' মাস্টার এডিশন

রেড ডটের ২০২০ সালের মর্যাদাপূর্ণ 'প্রোডাক্ট ডিজাইন' অ্যাওয়ার্ড পেল বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমির সাম্প্রতিক ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন 'রিয়েলমি এক্স ২ প্রো' মাস্টার এডিশন। ডিজাইন ইন্ডাস্ট্রিতে 'অস্কার' হিসেবে খ্যাত রেড ডটের এ অ্যাওয়ার্ড প্রথমবারের মতো পেল রিয়েলমি।

জার্মান ডিজাইন কাউন্সিল দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হবার পর থেকে ৬০ বছরের বেশি সময় ধরে রেড ডট প্রযুক্তিতে অভিনব সব ডিজাইনকে এ স্বীকৃতি দিয়ে আসছে। এটি পৃথিবীর অন্যতম বৃহৎ মর্যাদাপূর্ণ প্রতিযোগিতা যেখানে সর্বোচ্চ মানের ডিজাইনগুলোকে পুরস্কৃত করা হয়।

বিশ্বের অন্যতম সুপরিচিত ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইনার নাওতো ফুকাসাওয়া এবং রিয়েলমি যৌথভাবে তৈরি করে রেড ব্রিক এবং কংক্রিট টেক্সচারের রিয়েলমি এক্স২ প্রো মাস্টার এডিশন। প্রতিদিনকার জীবনের অতিসাধারণ বিষয় যেমন, দালানকোঠা নির্মাণের উপকরণের টেক্সচার থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে তাদের ফোনে এ নান্দনিক ডিজাইন নিয়ে আসে। এই অনন্যসাধারণ ডিজাইন অসংখ্য ব্যবহারকারীর মাঝে সমাদৃত হয়েছে।

ফোনগুলো তৈরিতে সর্বোচ্চ মান নিয়ন্ত্রনের জন্য রিয়েলমি তাদের নিজস্ব রিডিউসড প্রেসার পেইন্টিং এবং শীর্ষস্থানীয় ল্যাকার্ড গ্লাস কোটিং প্রযুক্তির ব্যবহার করে। ৩২ স্তরের পলিশ এবং পরীক্ষার মাধ্যমে ফোনে বিস্ময়কর ফ্রস্টেড টাচ অনুভূতি আনা হয়। পিকোশিওর লেজার প্রযুক্তির ব্যবহারে সূক্ষ্ম স্ট্রোকের মাধ্যমে ফোনের পেছনে ফ্রেটওয়ার্ক লোগো এবং ফুকাসওয়ার স্বাক্ষর খোদাই করা হয়, যেখানে সূক্ষ্মতম স্ট্রোকটির প্রস্থ মাত্র ০.০৯ মিলিমিটার। অপরূপ শিল্পকীর্তি ও নকশার এই চমৎকার ফোনটি শুধু ডিজাইনের জন্য পুরস্কারই পায়নি, বিশ্বব্যাপী ব্যবহারকারী, গণমাধ্যম ও শিল্প বিশেষজ্ঞদের থেকে বাহবাও অর্জন করেছে।

প্রতিটি মাস্টার এডিশন ডিজাইনেই আমাদের প্রতিদিনের জীবনের আশেপাশের সৌন্দর্যকে তুলে ধরা হয়েছে। এ চর্চার ফলে ডিজাইনাররা এমন অভূতপূর্ব ডিজাইন তৈরিতে উদ্বুদ্ধ হবেন যেসকল সৌন্দর্যগুলো আমাদের আশেপাশেই আছে, কিন্তু প্রায়ই আমাদের দৃষ্টি এড়িয়ে যায়।

‘ডেয়ার টু লিপ’ স্লোগানে ট্রেন্ডসেটার প্রযুক্তি ব্র্যান্ড রিয়েলমি এ বছর প্রযুক্তিপ্রেমী তরুণ সমাজের জন্য ট্রেন্ডসেটিং প্রযুক্তির পাশাপাশি ট্রেন্ডসেটিং ডিজাইন নিয়ে আসতে বদ্ধপরিকর।

এছাড়াও, কোম্পানিটি শীর্ষস্থানীয় ডিজাইনার এবং ফ্যাশনেবল শিল্পীদের নিয়ে দৃষ্টিনন্দন এবং শক্তিশালী গ্যাজেট তৈরির জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে 'রিয়েলমি ট্রেন্ডসেটার্স' নামে একটি কর্মসূচী হাতে নিয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিটি ক্রেতাদের নিরবচ্ছিন্ন আনন্দ নিশ্চিত করতে উন্নতমানের এআইওটি পণ্য ছাড়াও ৫জি, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিন্স, ইমেজিং এবং রিয়েলমি ইউআই নিয়ে আসবে।

রিয়েলমি ইতোমধ্যে চীন, ভারত, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, দক্ষিণ এশিয়া, ইউরোপ, রাশিয়া ও আফ্রিকার ২৭টি দেশের স্মার্টফোনের বাজারে প্রবেশ করেছে। আধুনিক সব প্রযুক্তি এবং ট্রেন্ডি পণ্যের মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে নিতে রিয়েলমি সম্প্রতি আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশে তাদের কার্যক্রম শুরু করেছে।

ইত্তেফাক/আরএ

ঘটনা পরিক্রমা : স্মার্টফোন

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৬ মে, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন