চীনের টিকটক কিনলে আন্দোলনে যাবে মাইক্রোসফট কর্মীরা!

চীনের টিকটক কিনলে আন্দোলনে যাবে মাইক্রোসফট কর্মীরা!
মাইক্রোসফট ও টিকটক। ছবি: সংগৃহীত

ভিডিও শেয়ারিংয়ের জনপ্রিয় অ্যাপ টিকটক যুক্তরাষ্ট্রে নিষিদ্ধ করার ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বিষয়টি নিয়ে গত কয়েক দিন ধরেই বিশ্ব জুড়ে তুমুল আলোচনা চলছে। ট্রাম্প বলেছেন, হয় টিকটক যুক্তরাষ্ট্রের কোনো কোম্পানিকে কিনে নিতে হবে, নয়তো তার দেশ থেকে ব্যাবসা গোটাতে হবে। ট্রাম্পের বক্তব্যের পর আগ্রহ দেখিয়েছে মার্কিন টেক জায়ান্ট মাইক্রোসফট। সবাই ধারণা করছে, হয়তো শেষ পর্যন্ত মাইক্রোসফট কিনেই নেবে টিকটক।

কিন্তু ভেতরের খবর হচ্ছে, টিকটক কেনার আগ্রহের কারণে বেজায় চটেছে মাইক্রোসফটের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। তারা টিকটক কেনার আগ্রহকে অনৈতিক বলে উল্লেখ করেছেন। কর্মীদের মতামত উপেক্ষা করে টিকটক কিনতে চাইলে এমনকি তারা আন্দোলনেও যেতে পারে, এমন ইঙ্গিত দিয়েছে। ইতিমধ্যে কোম্পানিটির কর্মীদের মধ্যে একটি ভোটাভুটি অনুষ্ঠিতি হয়েছে। সেখানে ৬৩ শতাংশ কর্মী বলেছে তারা টিকটককে এই কোম্পানির অধীনে দেখতে চাননা।

টিকটক নিয়ে বিভিন্ন দেশে অনেক বিতর্ক আছে। এতে মানুষ যে ধরনের ভিডিও বা কনটেন্ট ছাড়ে তা কতটা মানুষের উপকারে লাগে সেটা নিয়েও ভেবে দেখা উচিত বলে তাদের মন্তব্য। তাদের অভিযোগ, টিকটক মানুষের ভালোর চেয়ে ক্ষতি ডেকে আনে বেশি। সঠিকের চেয়ে ভুল তথ্য ছড়ায় বেশি। এবং মানুষকে সৃষ্টিশীল কাজে মনোনিবেশ করানোর চেয়ে ‘সস্তায় সেলিব্রেটি’ হবার পথ খুঁজতে উসকানি দেয়। তাই মাইক্রোসফটের মতো সৃষ্টিশীল এবং অভিজাত কোম্পানির জন্য টিকটকের মতো ‘ন্যাকামি’ করার অ্যাপ কেনা অসম্মানের।

অবশ্য মাইক্রোসফটের হাতে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় আছে টিকটক কেনার জন্য।

-ডেইলি মেইল

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত