বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকেও মুনাফায় প্রবৃদ্ধি ধরে রেখেছে রবি

বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকেও মুনাফায় প্রবৃদ্ধি ধরে রেখেছে রবি
ছবি: প্রতীকী

চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকেও মুনাফার প্রবৃদ্ধি ধরে রেখেছে টেলিকম সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান রবি। আজ বুধবার (২৮ জুলাই) ভার্চুয়াল মাধ্যমে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের ফলাফল ঘোষণার সময় এসব তথ্য জানিয়েছে অপারেটরটি।

রবি জানায়, করোনা মহামারির কারণে লকডাউন পরিস্থিতি সত্ত্বেও চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে রবি’র রাজস্ব আয় ২ হাজার ৩১ কোটি টাকায় পৌঁছেছে। এটি প্রথম প্রান্তিক থেকে ২ দশমিক ৫ শতাংশ বেশি। আর গত বছরের একই প্রান্তিকের তুলনায় ১৫ দশমিক ২ শতাংশ বেড়েছে। ভয়েস সেবা থেকে রবি’র রাজস্বের হার ২০২১ সালের প্রথম প্রান্তিকের তুলনায় ১ দশমিক ৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে গত বছরের একই প্রান্তিকের তুলনায় ভয়েস সেবায় রাজস্ব ১৩ দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে। অন্যদিকে ডাটা সেবায় রাজস্ব আয় দ্রুত গতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ আয় গত প্রান্তিকের তুলনায় ৩ দশমিক ৬ শতাংশ এবং গত বছরের একই প্রান্তিকের তুলনায় ২১ দশমিক ৯ শতাংশ বেড়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, স্থিতিশীল ঊর্ধ্বগামী রাজস্ব এবং দক্ষ ব্যয় ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে বছরের প্রথমার্ধে অপারেটরটির কর পরবর্তী মুনাফা (পিএটি) পৌঁছেছে ৮১ কোটি টাকা। এদিকে ৪৭ কোটি টাকা পিএটি নিয়ে চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিক শেষ করেছে।

চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকের তুলনায় রবির ফোরজি গ্রাহক সংখ্যা দ্বিতীয় প্রান্তিকে বৃদ্ধি পেয়েছে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ। তবে ২০২০ সালের একই প্রান্তিকের তুলনায় রবির ফোরজি গ্রাহক সংখ্যা ৬৫ শতাংশ বেড়েছে। মোট ৫ কোটি ১৮ লাখ গ্রাহকের মধ্যে প্রায় ২ কোটি গ্রাহক ফোরজি সেবার আওতায় এসেছে। এছাড়া অপারেটরটির ৭২ দশমিক ৪ শতাংশ গ্রাহক ইন্টারনেট ব্যবহার করেন যা এ খাতে সর্বোচ্চ।

বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকেও মুনাফায় প্রবৃদ্ধি ধরে রেখেছে রবি

প্রতি মাসে গ্রাহক কর্তৃক ব্যবহৃত ডাটার পরিমাণ দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। গ্রাহক প্রতি মাসিক ডাটা ব্যবহারের পরিমাণ এখন ৩ দশমিক ৯ জিবিতে দাঁড়িয়েছে। এটি প্রমাণ করে- প্রযুক্তিপ্রিয় মানুষ রবির শক্তিশালী ৪.৫জি নেটওয়ার্কের ওপর আস্থা রাখছেন।

২০২০ সালের একই প্রান্তিকের তুলনায় এ প্রান্তিকে রবি’র গ্রাহক সংখ্যা ৮ দশমিক ১ শতাংশ বৃদ্ধি পেলেও চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকের তুলনায় দ্বিতীয় প্রান্তিকে রবির গ্রাহক সংখ্যা ০ দশমিক ২ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিক শেষে রবি’র মোট গ্রাহক দেশের মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর ২৯ দশমিক ৪ শতাংশ। গত প্রান্তিকের তুলনায় ৫ দশমিক ২ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের শেষ নাগাদ রবি’র ইবিআইটিডিএ দাঁড়িয়েছে ৮৫৪ কোটি টাকায়। তবে ২০২০ সালের একই প্রান্তিকের তুলনায় ইবিআইটিডিএ ৩ দশমিক ২ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। চলতি প্রান্তিক শেষে ইবিআইটিডিএ মার্জিন দাঁড়িয়েছে ৪২ দশমিক ১ শতাংশে।

কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) গত প্রান্তিকের তুলনায় ৩৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে দ্বিতীয় প্রান্তিকে শূণ্য দশমিক ০৯ টাকা হয়েছে এবং গত বছরের একই প্রান্তিকের তুলনায়, ইপিএস প্রবৃদ্ধি হার ছিল ১৭ দশমিক ৮ শতাংশ। গঠনমূলকভাবে ইবিআইটিডিএ বৃদ্ধির ফলে স্থিরভাবে ইপিএস বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ফোরজি নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণে চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে রবি ৫৮৪ কোটি টাকা মূলধনী বিনিয়োগ করেছে। ১৩ হাজার ৫৪৫টি ফোরজি সাইট দিয়ে চলতি প্রান্তিক শেষ করেছে রবি। এটি ৯৮ শতাংশ জনসংখ্যার কাভারেজ নিশ্চিত করছে এবং প্রথম অপারেটর হিসেবে রবি নিজের নেটওয়ার্কে শতভাগ ফোরজি প্রযুক্তি স্থাপন করেছে। রবি রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দিয়েছে ১ হাজার ১৩৮ কোটি টাকা যা ওই প্রান্তিকের মোট রাজস্বের ৫৬ শতাংশ।

ইত্তেফাক/আরকে

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x