ঢাকা মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১০ বৈশাখ ১৪২৬
২৭ °সে

ডিজিটাল মার্কেটিং পেমেন্ট পলিসি নিয়ে গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত

ডিজিটাল মার্কেটিং পেমেন্ট পলিসি নিয়ে গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত
গোল টেবিল বৈঠকে আলোচকরা।

বেসিস সফ্টএক্সপো ২০১৯-এ অনুষ্ঠিত হলো ডিজিটাল মার্কেটিং পেমেন্ট পলিসি নিয়ে গোল টেবিল বৈঠক। বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন এন বি আরের ভ্যাট পলিসি বিভাগের মেম্বার রেজাউল হাসান।

অনুষ্ঠানের মডারেটর এবং আহবাওক ছিলেন বেসিস স্ট্যান্ডিং কমিটি ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের কো-চেয়ারম্যান কে এ এম রাশিদুল মজিদ। মূল বক্তব্য প্রদান করেন এনালাইজেন বাংলাদেশ লিমিটেডের চেয়ারম্যান, মোহাম্মদ রিসালাত সিদ্দিক। নিজের বক্তব্যে তিনি ডিজিটাল মার্কেটিং ফেসবুক এবং গুগলের ভুমিকা এবং এই জায়ান্ট কম্পানিগুলোর ট্যক্স না দিয়ে বাংলাদেশে ব্যবসা করার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। তার উপস্থাপণায় উঠে আসে বছরে প্রায় দুই হাজার কোটি টাকার বিজ্ঞাপন দেওয়া হয় ফেসবুকে, যার বেশির ভাগ অংশ যায় ছোট ছোট কম্পানি অথবা ব্যক্তি উদ্যোগে ফেসবুক পেজে ব্যবসার মাধ্যমে যার কোন ট্যক্স কিংবা ভ্যাট সরকার পাচ্ছে না।

গত দুই বছরে দেশের ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের পরিসর বেশ বেড়েছে। কিন্তু ট্যক্স ভ্যাট এবং পেমেন্টের ক্ষেত্রে কিছু জটিলতা কাজ করছে। এ সমস্যা দূর করতে এর সমাধান নিয়ে আলোচনা করেন আলোচকরা। আলোচকরা বলেন, ডিজিটাল মার্কেটিং খাতের বৃদ্ধি অব্যহত রাখতে এবং ভ্যাট /ট্যাক্স এ স্বচ্ছতা আনতে একটি নির্দিষ্ট পেমেন্ট সিস্টেম দরকার, দরকার পরিকল্পিত গাইডলাইনের। যেটি অনুসরণ করে গুগুল ফেসবুকে পেমেন্ট করা হবে যাতে করে সরকারের রাজস্ব আয় নিশ্চিত হবে। এছাড়া আলোচকরা সরকারের কাছে ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে খাতের উপর আরোপিত অনাবাসী কর ৫ বছরের জন্য রহিত করার দাবী জানান যাতে করে সবাই অবৈধ পেমেন্ট ব্যবহার না করে এই বৈধ পেমেন্ট চ্যনেল ব্যবহার করতে উৎসাহিত হয়। এটি ব্যবহার হলে ডিজিটাল মার্কেটিং এর সকল পেমেন্ট লিগাল হবে এবং সরকার জানতে পারবে কত টাকা আসলে গুগল এবং ফেসবুকের কাছে যাচ্ছে। যা সরকারকে এই জায়ান্ট কম্পানি গুলা দেশে আনার জন্য নগোসিয়েশনে সহয়তা করবে, যেমনটি হয়েছে ইন্ডিয়াতে।

প্রধান অতিথি জনাব রেজাউল হাসান তার বক্তব্যে বলেন, 'আমরাও এরকম কিছুই চিন্তা করছি, খুব ভালো লাগলো দেখে যে আপনাদের চিন্তার সাথে আমাদের চিন্তার মিল । উনি বেসিস এর ডিজিটাল মার্কেটিং কমিটিকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন এই পেমেন্ট সিস্টেম চালু হলে অনেক কিছু স্বচ্ছ হবে এবং ভ্যাট ট্যক্স আদায় সহজ হবে। পলিসি বাস্তবায়নে আমি বোসিসকে সর্বাধিক সহায়তা করবো'।

এছাড়া বক্তারা লোকাল ইন্ড্রাস্ট্রীগুলোর গুগল ও ফেসবুকের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাজারে টিকে থাকার লক্ষ্যে লোকাল এড নেটওয়ার্কগুলোকে ভ্যাট এবং ট্যাক্সের আওতা থেকে মুক্ত করার দাবী জানান। লোকাল এডভার্টাইজারদের লোকাল প্লাটফর্মে বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য উৎসাহিত করা, মনোপলি বাজার নিতি থেকে বের হয়ে মুক্ত বাজার নিতিতে কাজ করার অনুরোধ জানান অনেকে। যারা ফেসবুকের মত লোকোল প্লাটফর্ম নিয়ে কাজ করছেন যেমন রিটস ব্রাউজার এর মত লোকাল ব্রাউজারকে বেশি বেশি সুযোগ সুবিধা এবং প্রচারে সহায়াতা জন্য দাবী জানান অনেক বক্তারা।

আরও পড়ুন: বাংলাদেশ-ভারত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বৈঠক ১ এপ্রিল

এই বৈঠকে আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর, বেসিসের ডিরেক্টর ইন চার্জ ডিজিটাল মার্কেটিং স্টেন্ডিং কমিটি দিদারুল আলম সানি, মাস্টার কার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল, এস এস এল ওয়েরলেসের চীফ অপারেটিং অফিসার আশীষ চক্রবর্তী এবং এরা ইনফোটেক লিমিটেডের চীফ এক্সিকিউটিভ অফিসার মো. সিরাজুল ইসলামসহ আরও অনেকে।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৩ এপ্রিল, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন