ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬
৩০ °সে


বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো আসছে ‘মেথানল ফুয়েল সেল’

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো আসছে ‘মেথানল ফুয়েল সেল’
ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশে প্রথমবারের মত ‘মেথানল নির্ভর ফুয়েল সেল’ নিয়ে আসার ঘোষণা দিল ইডটকো গ্রুপ একটি অ্যান্ড টু অ্যান্ড সমন্বিত টেলিকমিউনিকেশন অবকাঠামো সার্ভিস কোম্পানি ও জাস এনার্জি সার্ভিসেস (জেডইএস)। বুধবার এই দুই প্রতিষ্ঠান মিলে ‘মেথানল ফুয়েল সেল’ নিয়ে আসার ঘোষণা দেয়।

লিকুইড ‘মেথানল ফুয়েল সেল’ সবুজ জ্বালানি ব্যবহার করে এবং আরো দক্ষতার সাথে পরিচালিত হয়ে শব্দ দূষণ ও পরিবেশ দূষণ হ্রাস করবে। এছাড়াও এই সমাধান ডিজেল জেনারেটরের জন্য একটি কার্যকর বিকল্প হিসেবে সাইট- এ নির্ভরযোগ্য শক্তি হিসেবে কাজ করে।

ইডটকো বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজিং ডিরেক্টর রাহুল চৌধুরী বলেছেন, ‘বাংলাদেশে বিশেষভাবে গ্রীষ্মে লোড শেডিং বেজ ট্রান্সসিভার স্টেশন (বিটিএস) পরিসেবাটিকে প্রভাবিত করে। ডিজেল জেনারেটর কার্বন নির্গমন এবং শব্দ দূষণ তৈরি করে। ইডটকো তার ক্রমাগত উদ্ভাবন এবং ডিজিটালাইজেশনের মাধ্যমে কম কার্বন নির্গমন নিশ্চিত করার জন্য অঙ্গীকারবদ্ধ। এই প্রতিশ্রুতি আমাদের উন্নত সেবা মান নিশ্চিত করে, একই সাথে পরিবেশগত নিরাপত্তা এবং গ্রাহক সন্তুষ্টি নিশ্চিত করে।’

আরো পড়ুন: আগে বিমান চলতো, এখন গরু চরে

জাসের সিইও তৌফিক মালেক বলেন, ‘মিশন এবং ডাটা ক্রিটিক্যাল অ্যাপ্লিকেশন ডিভাইসগুলি যেমন সার্ভেলেন্স সিস্টেম, সেন্সর, ডিটেক্টর, পাম্প, কম্প্রেসার, যোগাযোগ ও টেলিকম, সিগন্যালিং এবং আরও অনেক কিছুর জন্য যোগ্যতাসম্পন্ন সংস্থা এবং উদ্যোগসমূহে হাইড্রোজেন ফুয়েল সেল সরবরাহ করা হয়। আমরা নির্বাচিত ২২০ওয়াট, ৩কিলোওয়াট, ৫কিলোওয়াট এবং ১০কিলোওয়াট ‘আউটডোর রেডি' ফুয়েল সেল প্রদান করি। এই সিস্টেমসমূহ শব্দহীন, পরিবেশ বান্ধব, কম রক্ষণাবেক্ষণ প্রয়োজন, এবং নির্গমন এবং দূষণ মুক্ত। মেথানল জ্বালানি হিসাবে ব্যবহার করা হবে, যা স্থানীয়ভাবে পাওয়া যায়Ñ এটি সবুজ এবং ডিজেল ও অক্টেনের মত জীবাশ্ম ভিত্তিক জ্বালানির মূল্যের ঊর্ধ্বগতির তুলনায় স্বাধীন।

এর সুবিধাগুলো হলে- ফুয়েল সেলগুলো কম কার্বন নির্গমন নিশ্চিত করে, স্থানীয়ভাবে পাওয়া পরিবেশ বান্ধব বিকল্প জ্বালানী হিসেবে মিথানল পানির সঙ্গে মিশ্রিত, নিরাপদ ও স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক কিছু নেই, ডিজেল জেনারেটর (ডিজি) তুলনায় কম ফুটপ্রিন্ট প্রয়োজন হয়, মাসিক খরচ ব্যবহারের উপর ভিত্তি করে ডিজির তুলনায় কম, নির্ভরযোগ্য ও প্রাপ্যতার পরিমাণ বেশি, মিথানল কোন ব্যবহারে না আসার কারণে ফুয়েল (ডিজেল) চুরির সমস্যা কোন প্রভাব ফেলবে না, ফুয়েল সেল হার্ডওয়্যার রক্ষণাবেক্ষণ খুব সহজ এবং সাধারণ।

ইত্তেফাক/বিএএফ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৮ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন