ঢাকা মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২১ °সে


ইউনাইটেডে ফিরতে পারেন রোনালদো!

ইউনাইটেডে ফিরতে পারেন রোনালদো!
ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো । ছবি: ইত্তেফাক

জুভেন্টাস সিরি ‘এ’-তে গেল কয়েকটা মৌসুম ধরেই এক নম্বরে থাকে। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো দলটিতে যোগ দেওয়ার সেই অবস্থানটা আরো পাকাপোক্ত হয়েছে। রোনালদোকে রিয়াল থেকে তুরিনে উড়িয়ে আনার পেছনে জুভেন্তাসের লক্ষ্য ছিল একটাই—ইউরোপিয়ান শ্রেষ্ঠত্ব। সেটা এবার না হলে প্রয়োজনে তাকে বিক্রিও করে দিতে পারে ক্লাবটি। আর সেটা হলে রোনালদো তুরিন ছেড়ে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে পাড়ি জমাতে পারেন বলেন দাবি করেছেন স্প্যানিশ বিশেষজ্ঞ এডুয়ার্ডো ইন্ডা। একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানে ইন্ডা এই দাবি করেন।

মূলত চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপাকে টার্গেট করে রিয়াল মাদ্রিদ থেকে এক মৌসুম আগে রোনাল্ডোকে উড়িয়ে এনেছিল জুভেন্তাস। কিন্তু গত মৌসুমের হতাশা থেকে খোদ জুভেন্তাসের মধ্যেই গুঞ্জন ছিল রোনালদো হয়তো তুরিন ছেড়ে চলে যাচ্ছেন। তার ওপর এবারের মৌসুমটা কোচ মরিজিও সারির অধীনে মোটেই ভালো কাটছে না পর্তুগীজ সুপারস্টারের। আন্তর্জাতিক বিরতির আগে দুটি ম্যাচে তাকে উঠিয়ে নিয়েছিলেন সারি। বদলি বেঞ্চে যাবার আগে এ সময় রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক এই তারকাকে মাঠের মধ্যেই বেশ রাগান্বিত হতে দেখা গেছে। যদিও পরবর্তীতে সারি জানিয়েছেন ইনজুরির কারণেই তিনি রোনালদোকে উঠিয়ে নিয়েছিলেন। কিন্তু পর্তুগালের হয়ে নিজেকে ফিট প্রমাণ করে সারির ঐ ব্যাখ্যাকে ভুল দাবি করেছেন রোনালদো।

রবিবার লুক্সেমবার্গের বিপক্ষে ইউরো ২০২০ বাছাইপর্বের শেষ ম্যাচে পর্তুগালের হয়ে রোনালদো ক্যারিয়ারের ৯৯তম গোল করেছেন। একটি বিষয় অনেকটাই নিশ্চিত যে ইউরোপীয়ান ক্লাব ফুটবলের সর্বোচ্চ শিরোপা এবার ঘরে না আসলে মৌসুমের শেষে রোনালদো তুরিন ছেড়ে চলে যাবেন। রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ২০১৮র গ্রীষ্মে ১০০ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে জুভেন্তাসে যোগ দিয়েছিলেন রোনালদো। মৌসুমে মাত্র ১২টি গোল করা সত্ত্বেও তার দল সিরি-এ শিরোপা ঠিকই ধরে রেখেছিল। নতুন মৌসুমে এ পর্যন্ত তার কাছ থেকে এসেছে পাঁচটি গোল। ইন্ডা আরো দাবি করেছেন রোনালদো চলে গেলে জুভেন্তাস ইউনাইটেড থেকে পল পগবা কিংবা ও পিএসজি থেকে কিলিয়ান এমবাপ্পেকে দলে ভেড়াতে চেষ্টা করবে।

আরও পড়ুন: বিএনপি আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে চক্রান্তের পথ বেছে নিয়েছে : কাদের

২০০৩-০৯ সালের মধ্যে রোনালদো ম্যান ইউতে ছয় মৌসুমে ২৯৪ ম্যাচে করেছেন ১১৮ গোল। এই সময়ের মধ্যে তিনি তিনটি প্রিমিয়ার লিগ, ২০০৪ সালের এফএ কাপ, ২০০৮ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জেতার কৃতিত্ব দেখান। এরপর ২০০৯ সালে রেকর্ড ৮০ মিলিয়ন পাউন্ডে রিয়াল মাদ্রিদে পাড়ি জমিয়েছিলেন। বার্নাব্যুতে নয় বছরের ক্যারিয়ারে ৪৩৮ ম্যাচে করেছেন ৪৫০ গোল। জিতেছেন দুটি লা লিগা ও চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা। - বাসস

ইত্তেফাক/এসএইচএম

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১০ ডিসেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন