ঢাকা বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
১৮ °সে


টস জিতে ব্যাটে বাংলাদেশ

টস জিতে ব্যাটে বাংলাদেশ
ফাইল ছবি

কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে দ্বিতীয় টেস্টে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মুমিনুল হক। বাংলাদেশ ও ভারত প্রথমবারের মতো গোলাপি বলে দিবা-রাত্রির টেস্ট ম্যাচ খেলতে মাঠে নামছে। এই ম্যাচ দেখতে ইডেনে উপস্থিত আছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

ইন্দোরে প্রথম টেস্ট হেরে ১-০-তে পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ। ইডেনে তাই সিরিজে সমতা ফেরানোর টার্গেটেই খেলবে মুমিনুল বাহিনী।

ক্রিকেট দুনিয়ার অনেক দেশ খেলে ফেললেও বাংলাদেশ-ভারত, গোলাপি বলের স্বাদ আগে নেয়নি। তাই ক্রিকেটারদের মাঝেও অনেক রোমাঞ্চ রয়েছে। গতকাল বাংলাদেশের অধিনায়ক অবশ্য বলেছেন, রোমাঞ্চ বলে ২২ গজের লড়াইয়ের দিকেই ফোকাস করছে তার দল।

পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে ম্যাচের বহিরাঙ্গের আয়োজন ছুঁয়ে যাচ্ছে না বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের। মুমিনুলরা ম্যাচের পানেই তাকিয়ে। গতকাল ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক বলেছেন, ‘বাইরে কী হচ্ছে না হচ্ছে আমার মনে হয় না, পেশাদার খেলোয়াড় হিসেবে এটা আমাদের প্রভাবিত করবে। এই চাপ কোনোভাবেই আসা উচিত না। যে যার কাজ ঠিক মতো করছি। চাপ চলে আসার কোনো সুযোগ নাই।’

গোলাপি বলের রোমাঞ্চকেও পাশে রাখছেন মুমিনুল। তিনি বলেছেন, ‘দুই দলের কেউ গোলাপি বলে খেলেনি। এটা দুই দলের জন্যই নতুন। আমার মনে হয়, দুই দলই এই ম্যাচ নিয়ে রোমাঞ্চিত। কলকাতার সবাই এই ম্যাচের অংশ হতে চায়। পরিবার-স্বজন নিয়ে মাঠে আসতে চায়।’

ইন্দোরের ভুল শুধরে ইডেনে নিজেদের সেরাটা দিয়ে লড়তে চায় বাংলাদেশ। বিশেষ করে ব্যাটিংয়ে অনেক উন্নতি দরকার সফরকারীদের। ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতা ফেরাতে চাইলে মুশফিক-ইমরুলদেরকেই পারফর্ম করতে হবে।

গতকাল তিনি বলেছেন, ‘আপনি যখন একটা ম্যাচ খেলতে নামবেন তখন আগের ম্যাচ জিতেছেন না হেরেছেন সেটা নিয়ে চিন্তা করতে পারবেন না। খারাপ-ভালো যেটাই হোক, সেখান থেকে শিক্ষা নিয়ে আপনি পরের ম্যাচের দিকে মনোযোগ দিতে পারবেন। আগে ম্যাচে আমরা যেসব ভুল করেছি, সেখান থেকে শিক্ষা নিয়ে এই ম্যাচে কাজে লাগাব—এটাই আমি আশা করি।’

ভারতীয় পেসারদের সামলাতে ব্যাটসম্যানদের কাছে আগের বেশি ধৈর্য্য আশা করছেন অধিনায়ক। ইডেনের ধারণ ক্ষমতা প্রায় ৭০ হাজার দর্শক। মুমিনুল দর্শকদের উপস্থিতিকে চাপ হিসেবে নিতে নরাজ। দর্শকরা বৈরী হলেও সেটি উপভোগেই নিস্তার দেখছেন তিনি। বাংলাদেশের অধিনায়ক বলেছেন, ‘দর্শক যদি মাঠে থাকে আমার সব সময় খেলতে ভালো লাগে। খেলাটা অনেক বেশি মজা হয়, আমি এভাবেই চিন্তা করি। আমার মনে হয় না, এটা কোনোভাবে চাপ হবে।’

ইত্তেফাক/এএম

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১১ ডিসেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন