বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা রোববার, ১২ জুলাই ২০২০, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭
২৮ °সে

সমর্থকদের পাগলামিতে ক্ষেপেছেন লিভারপুল কর্তৃপক্ষ

সমর্থকদের পাগলামিতে ক্ষেপেছেন লিভারপুল কর্তৃপক্ষ
শিরোপা জয়ের পর সমর্থকদের উল্লাস।

দীর্ঘ ৩০ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের শিরোপা জিতলো লিভারপুল। এমন দিনে আনন্দ বুকে চেপে রাখা তো সত্যিই দোরুহ ব্যাপার। ১৯৮৯-৯০ সালের পর প্রথমবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা ঘরে তুললো অল রেডস খ্যাত দলটি। যদিও করোনার কারণে এমন আনন্দকে বাধভাঙা উৎসবে পরিণত করতে পারছেন না মোহামেদ সালাহ, সাদিও মানেরা।

তবে সতর্কতার পরও থামিয়ে রাখা যায়নি ক্লাবটির সমর্থকদের। কোভিড-১৯ এর মাঝেই জায়ান্ট ক্লাবটির ভক্তরা উন্মাতাল উল্লাসে মেতেছেন। সমর্থকদের এম কাণ্ডে লিভারপুল ক্লাব কর্তৃপক্ষ, মার্সেসাইড পুলিশ ও লিভারপুল সিটি কাউন্সিল তিরস্কার জানিয়েছে। যেখানে টানা দ্বিতীয় রাতেও হাজার হাজার ভক্ত-সমর্থক শিরোপা উদযাপনে অবাধে উল্লাস করেছেন। মানা হয়নি কোনো ধরনের সামাজিক দূরত্ব।

তবে সব কিছুরই তো সীমা থাকে। লিভারপুলের কয়েকজন ভক্ত-সমর্থক সেই সীমা ছাড়িয়ে গেছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, সমর্থকদের মধ্য থেকে কে বা কারা রাজকীয় লিভার বিল্ডিংয়ের দিকে আতশবাজি ছুঁড়ে দেন। সেখান থেকে আগুন ধরে যায় বিল্ডিংয়ে। সেই আগুন লাগার পর আবার কয়েকজন সমর্থকদের আনন্দে তালি দিতেও দেখা যায়।

বিল্ডিংয়ের বেলকনিতে লেগে যাওয়া সেই আগুন নেভাতে চারটি ফায়ার ইঞ্জিন পাঠানো হয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে। তবে কি ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে মার্সেসাইড পুলিশকে কঠোর হতে হয়েছে। দুইজনের বেশি জড়ো হওয়াতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তারা।

‘লিভারপুল ইকো’তে প্রকাশিত আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায়, পুলিশের দিকে কাঁচের বোতল ছুড়ে মারছেন কয়েকজন সমর্থক। পুলিশের মুখপাত্র অবশ্য এই বোতল নিক্ষেপ কিংবা কাউকে গ্রেফতারের বিষয়ে কিছু বলতে রাজি হননি। তবে তিনি স্বীকার করেন, রাতভর বেশ ঝামেলা পোহাতে হয়েছে।

লিভারপুল শহরের আইকনিক কাঠামো লিভার বিল্ডিংয়ে সমর্থকরা একসঙ্গে জড়ো হয়ে আতশবাজি প্রজ্বলন করেন। বিয়ার বা অনান্য পানীয় পান করে ময়লার স্তুপ করে রাখেন। যা পরিচ্ছন্নতাকর্মীদেরও বিব্রত করেছে। আর সমর্থকদের এমন আচরণকে লিভারপুল কর্তৃপক্ষ ‘সম্পূর্ণ অগ্রণযোগ্য’ বলে জানিয়েছে।

ইত্তেফাক/এসআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত