সিলেট সিক্সার্সকে আইনি নোটিশ দিলো বিসিবি

সিলেট সিক্সার্সকে আইনি নোটিশ দিলো বিসিবি
সিলেট সিক্সার্স ক্রিকেট দল। ফাইল ছবি

ফেডারেশন অব ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন (ফিকা) তাদের বার্ষিক প্রতিবেদন বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ ( বিপিএল) যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সেটা নিয়ে ক্রিকেটাঙ্গনে তোলপাড় শুরু হয়েছে। বিপিএলে ক্রিকেটারদের বেতন না দেয়ারও অভিযোগ করে প্রতিবেদনে। সিলেট সিক্সার্স তিন ক্রিকেটারের পাশাপাশি একজন কোচকে পারিশ্রমিক দেয়নি। এই নিয়ে একাধিকবার মৌখিকভাবে জানানোর পরও বিপিএলের এ ফ্র্যাঞ্চাইজি পারিশ্রমিক পরিশোধ করেনি। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী এবার দলটিকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

২০১৮-১৯ বিপিএলে ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান নিকোলাস পুরান, আফগান ক্রিকেটার গুলবাদিন নাইব, পাকিস্তানের সোহেল তানভীর ও ওয়াকার ইউনিসের পুরো অর্থ পরিশোধ করেনি সিলেট সিক্সার্স। ওই বছর কোচ হিসেবে কাজ করেছেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার ওয়াকার ইউনিস। এ অবস্থায় এই তিন ক্রিকেটার এবং কোচ- ফ্র্যাঞ্চাইজি ও বিসিবির সঙ্গে যোগাযোগ করেও টাকা পেতে ব্যর্থ হয়েছেন।

সোমবার ফেডারেশন অব ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন (ফিকা) তাদের বার্ষিক প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে, ক্রিকেট বিশ্বজুড়ে ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টগুলোতে খেলা এক-তৃতীয়াংশের বেশি ক্রিকেটারের পারিশ্রমিক পেতে দেরি হয় কিংবা একেবারেই পান না। যে ৬টি টুর্নামেন্টকে চিহ্নিত করা হয়েছে, সেখানে রয়েছে বিপিএলও।

যদিও মঙ্গলবার বিসিবি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়েছে ২০১৮ বিপিএলে ১৭০ দেশি ও বিদেশি খেলোয়াড়, কোচ ও সাপোর্টিং স্টাফ কাজ করেছে। একটি নির্দিষ্ট ফ্র্যাঞ্চাইজি মাত্র চারজনের পারিশ্রমিক বকেয়া রয়েছে। যেটিকে বিচ্ছিন্ন ঘটনা বলেছে বিসিবি।

এর পর বিসিবি বকেয়া পারিশ্রমিক আদায়ে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে। মঙ্গলবারই সিলেট সিক্সার্সকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছে। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক। আইনি নোটিশ পাঠালেও তিনি জানিয়েছেন, ড্রাফটের বাইরের খেলোয়াড় হওয়ার কারণে বিসিবির অর্থ পরিশোধের কোন সুযোগ নেই।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেছেন, ‘আমরা ফ্র্যাঞ্চাইজিকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছি, যত দ্রুত সম্ভব তাদের বকেয়া পারিশ্রমিক প্রদান করতে। আমাদের এখানে করার আছে সামান্যই। তাদের পারিশ্রমিক প্রদান করার সুযোগ আমাদের নেই। কারণ প্রত্যেককে ড্রাফটের বাইরে থেকে নেওয়া হয়েছে।’

ফিকার প্রতিবেদন বিসিবির জন্য উদ্বেগের উল্লেখ করে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের এই সদস্য সচিব আরও বলেছেন, ‘এটি বিসিবির জন্য উদ্বেগের বিষয় এবং আমরা এটিকে গুরুত্বের সাথেই নিচ্ছি। বিপিএল বিসিবির টুর্নামেন্ট। এখানে ভালো-মন্দ যে কোনো কিছুর সঙ্গে বিসিবি যুক্ত থাকবে এটাই স্বাভাবিক। আমরা সামনে বিষয়গুলোকে আরও ভালোভাবে দেখভাল করবো।’

ইত্তেফাক/এসআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত