‘তামিমা মেয়ের কথা চিন্তা করলে নাসিরকে বিয়ে করতো না’

‘তামিমা মেয়ের কথা চিন্তা করলে নাসিরকে বিয়ে করতো না’
ছবি: সংগৃহীত

ক্রিকেটের ‘ব্যাড বয়’ খ্যাত নাসির হোসেন সম্প্রতি বিয়ে করেছেন সৌদি এয়ারলাইন্সের কেবিন ক্রু তামিমা তাম্মিকে। বিয়ের আগে তামিমা সম্পর্কে তেমন কিছু জানা না থাকলেও বিয়ের পর বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের শিরোনাম হচ্ছেন নাসির-তামিমা দম্পতি। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তামিমা আরো দুটি বিয়ে করেছিলেন। এসব বিষয় জানাতে তামিমার কন্যা সন্তানের জনক রাকিব হাসান কথা বলেন ইত্তেফাক অনলাইনের সঙ্গে।

১ বছরেরও বেশি সময় প্রেমের সম্পর্কের পর ২০১১ সালে পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে হয় রাকিব-তামিমার। যদিও তার আগেই পালিয়ে আরো একবার বিয়ে করেছিলেন তারা। বিয়ের পর তামিমার পড়াশোনার দায়িত্ব নেন রাকিব। পরে তামিমা চাকরি জীবনে ফিরলে তার জীবনে চলে আসে নানা বৈচিত্র্য। শুরু হয় বিভিন্ন ছেলেদের সঙ্গে মিলামেশা।

তামিমা-রাকিবের ঘরে কন্যা সন্তান আসলে তাকে দেখাশোনার জন্য তামিমার মাও উত্তরায় তাদের বাসায় চলে আসে। তবে খুব বেশি দিন একসাথে থাকতে পারেননি তারা। শাশুড়ির অপছন্দের কারণে বাসা থেকে চলে যেতে হয় রাকিবকে। তবে নিজের মেয়েকে দেখতে চাইলেও তাকে দেখার সুযোগ দেয়নি শাশুড়ি। এক পর্যায়ে স্ত্রীর সম্মতিতে মেয়েকে নিজের বাসায় নিয়ে যান রাকিব।

তামিমা তো অন্য ছেলেকে বিয়ে করেছেন এখন আপনার মেয়েকে যদি নিয়ে যেতে চায় আপনি কি করবেন? ইত্তেফাক অনলাইনের পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হলে রাকিব কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, যে মা তার মেয়ের কথা চিন্তা না করে অন্য ঘরে চলে যেতে পারে সে কিভাবে তার মেয়েকে দাবি করবে? আইন কি বুঝবে না সে ( তামিমা) তার মেয়ের কথা ভুলে গেছে। মেয়েকে নিয়ে তার যদি কোনো চিন্তা থাকতো তাহলে সে বিয়ে করতে পারতো? আমি আমার মেয়েকে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। তাই আমার মেয়ে আমার কাছেই থাকবে।

ইত্তেফাক/এসআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x