কাতারে খুব একটা সুবিধা পাচ্ছে না জামালরা

কাতারে খুব একটা সুবিধা পাচ্ছে না জামালরা
বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে প্রথম দিনেই খেলোয়াড়দের ফিটনেস পরীক্ষা নিয়েছেন কোচ জেমি। ইয়োইয়ো নামের এই টেস্টে সবাই উত্তীর্ণ হওয়ায় জেমিও খুশি —মোশারফ হোসেন

বাংলাদেশের মাটিতে খেলা হওয়ার কথা। সেই খেলা অন্য দেশে হচ্ছে। অথচ সুযোগ সুবিধা আদায় করতে পারছে না বাংলাদেশ। ভারতের সুনীল ছেত্রীরা যখন দোহার মাটিতে অনুশীলনে ব্যস্ত থাকবেন, তখন বাংলাদেশের ফুটবলাররা হোটেলে রুমে বন্দি থাকবেন। ম্যানেজার ইকবাল বললেন, ‘ভারতের বিষয়টা আমার জানা নেই।’

কাতারে বিশ্বকাপ বাছাই খেলতে যাবে বাংলাদেশ। যে তিনটি ম্যাচ খেলবে সেই ম্যাচগুলো বাংলাদেশে হওয়ার কথা ছিল। কারণ আফগানিস্তান, ওমান এবং ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ তিনটি বাংলাদেশের হোম ম্যাচ। করোনার কারণ দেখিয়ে বাংলাদেশকে কাতারে নিয়ে গিয়ে হোম ম্যাচ খেলিয়ে ডি গ্রুপ পর্বের খেলা শেষ করছে এএফসি।

কাতারে গিয়ে বাংলাদেশ এবং ভারতের জন্য দুই রকম সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। বাংলাদেশ চেয়েছিল দোহায় গিয়ে খুব বেশি সময় যেন কোয়ারেন্টাইন করতে না হয়। বাফুফে চেষ্টা করে সেটাকে কমিয়ে এনেছে। জাতীয় দলের ম্যানেজার ইকবাল হোসেন সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন দুই দিনের কোয়ারেন্টাইন করতে হবে। এটা আমাদের জন্য সুখবর।’ রবিবার এই খবরের পর ইকবাল গতকাল বললেন, ‘ভারতও দুই দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকবে। এটাই জানি।’

দোহায় গিয়ে বাংলাদেশের ফুটবলারদের দুই দিন হোটেল বন্দি থাকতে হলেও ভারতের খেলোয়াড়দের সেই কষ্টটা করতে হচ্ছে না। জানা গেছে, ভারত দোহায় গিয়ে অনুশীলন করতে পারবে। কাতার সরকার ভারতীয় ফুটবল দলকে সেই সুবিধাই দিচ্ছে এমন খবর ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমেও উঠে এসেছে। অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের সচিব কুশল দাস বলেছেন, তারা কাতারকে বিশেষ অনুরোধ করেছিলেন যেন কোভিড টেস্টে উত্তীর্ণ ফুটবলাররা অনুশীলন শুরু করতে পারে। কাতারের মন্ত্রীরা যথেষ্ট সহযোগিতা করেছেন। ফলে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন পর্বে ফুটবলারদের থাকতে হচ্ছে না। এই কারণে অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন কাতারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে।

বাংলাদেশের মাটিতে খেলা হওয়ার কথা। সেই খেলা অন্য দেশে হচ্ছে। অথচ সুযোগ সুবিধা আদায় করতে পারছে না বাংলাদেশ। ভারতের সুনীল ছেত্রীরা যখন দোহার মাটিতে অনুশীলনে ব্যস্ত থাকবেন, তখন বাংলাদেশের ফুটবলাররা হোটেলে রুমে বন্দি থাকবেন। ম্যানেজার ইকবাল বললেন, ‘ভারতের বিষয়টা আমার জানা নেই।’

২০ মে কাতারে ভারতীয় ফুটবল দলের অনুশীলন শুরু হবে। ১৯ মে খেলোয়াড়, সুনীল ছেত্রীরা পৌঁছাবেন, কোচ বিদেশি সাপোর্ট স্টাফ, সবাই দোহায় মিলিত হবেন। সেখানে কোভিড টেস্ট করিয়ে অনুশীলনে নামবে ভারতীয় ফুটবলাররা। আর অন্যদিকে বাংলাদেশ ফুটবল এখনো কাতার যাওয়ার তারিখই চূড়ান্ত করতে পারেনি। গতকাল রাতে ম্যানেজার ইকবাল হোসেন বললেন, ‘আমরা কাতারে যাওয়ার ডেট কনফার্ম করতে পারিনি। এটা কনফার্ম হলেই প্রস্তুতি ম্যাচের প্রতিপক্ষ নির্ধারণ হয়ে যাবে।’ তাহলে কী এটা বাফুফের সাংগঠনিক ব্যর্থতা। কলকাতার সংবাদ মাধ্যমের তথ্য অনুসারে তাদের দেশ কাতার সফরের সব কিছু গুছিয়ে রেখেছে আর বাফুফে এখনো প্লেনে ওঠার তারিখও নির্ধারণ করতে পারছে না।

ইত্তেফাক/এমআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x