অলিম্পিকে ভাইয়ের খেলা উপভোগ করছেন স্টার্ক

অলিম্পিকে ভাইয়ের খেলা উপভোগ করছেন স্টার্ক
মিচেল স্টার্ক ও ব্র্যান্ডন স্টার্ক। ছবি: সংগৃহীত

করোনাকালে ক্রিকেটের চিত্র আমূল বদলে গেছে। কোয়ারেন্টিন, জৈব সুরক্ষা বলয়, মাঠ, খেলা, হোটেলে আবদ্ধ হয়ে গেছে ক্রিকেটারদের জীবন। এর মধ্যেই প্রস্তুত হতে হচ্ছে ২২ গজের লড়াইয়ের জন্য। পাঁচ ম্যাচের টি-২০ সিরিজের আগে এখন ঢাকার ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে কোয়ারেন্টিনে রয়েছে বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া দলের ক্রিকেটাররা।

আজ শেষ হবে কোয়ারেন্টিন। রবিবার (১ আগস্ট) থেকে মিরপুর স্টেডিয়ামে অনুশীলনে নামবে দুই দল। কোয়ারেন্টিনের এই অলস সময়টা কাটানোর নানা উপায় ক্রিকেটাররা খুঁজে বের করেছেন এরই মধ্যে। কোয়ারেন্টিনে অস্ট্রেলিয়ার ফাস্ট বোলার মিচেল স্টার্কের সময়টা অবশ্য খুব খারাপ কাটছে না। ঢাকার হোটেলে বসে তিনি চোখ রাখছেন টোকিও অলিম্পিকে। গেমস চলাকালীন টিভি পর্দায় চোখ রাখার মূল কারণ তার ছোট ভাই ব্র্যান্ডন স্টার্ক। তার পারফরম্যান্সই দেখছেন বাঁহাতি এ পেসার।

ব্র্যান্ডন স্টার্ক, মূলত হাই জাম্পার। গতকাল টোকিও অলিম্পিকে শুরু হয়েছে অ্যাথলেটিকস ডিসিপ্লিনের খেলা। প্রথম দিনে বাছাই পর্ব পার করেছেন ব্র্যান্ডন। আগামীকাল এ ইভেন্টের ফাইনাল হবে। ফাইনালের ১৩ অ্যাথলেটের তালিকায় আছেন স্টার্কের ছোট ভাই।

গতকাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্র্যান্ডনের ছবি পোস্ট করে স্টার্ক লিখেছেন, ‘আইসোলেশনে সবচেয়ে বড় ইতিবাচক দিক হচ্ছে ব্র্যান্ডনকে অলিম্পিকে দেখা। যাও, তাদের হারিয়ে দাও।’

স্টার্ক, দুরন্ত গতির বাঁহাতি পেসার। সময়ের অন্যতম সেরা পেসার তিনি। একাই প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে দেওয়ার সামর্থ্য রাখেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সর্বশেষ তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ১১ উইকেট নিয়েছেন তিনি। দারুণ ফর্মে থাকা এ অস্ট্রেলিয়ান পেসার নিশ্চিতভাবেই বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের জন্য বড় হুমকি হবেন। ক্যারিবিয়ানে অবশ্য চার টি-২০ খেলে একটি উইকেট পেয়েছেন ৩১ বছর বয়সি এ পেসার। এ ফরম্যাটে ৩৯ ম্যাচে ৪৮ উইকেট রয়েছে তার।

ব্যাটিংয়ে স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার, অ্যারন ফিঞ্চ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েলরা না থাকলেও বাংলাদেশ সফরে আসা অস্ট্রেলিয়া দলের বোলিং বিভাগটা বেশ শক্তিশালী। পেস আক্রমণে স্টার্কের সঙ্গে আছেন জস হ্যাজেলউড। লেগ স্পিনার অ্যাডাম জামপা, অফস্পিনার অ্যাস্টন টার্নার ও বাঁহাতি স্পিনার অ্যাস্টন অ্যাগার রয়েছেন দলে। ব্যাটিংয়ে জশ ফিলিপি, মিচেল মার্শ, অ্যালেক্স ক্যারি, ম্যাথু ওয়েডের দিকেই তাকিয়ে থাকবে অস্ট্রেলিয়ানরা।

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া টি-২০ সিরিজ নিয়ে কঠোর অবস্থানেই আছে বিসিবি। সফরকারীদের চাহিদা পূরণে তত্পর বিসিবি। গতকাল ও আজ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সবার প্রবেশই নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তা জানিয়েছে বিসিবি। আগামীকাল থেকে মাঠে প্রবেশ করতে পারবেন গণমাধ্যমকর্মীরা।

এদিকে রুম কোয়ারেন্টিনে থাকা দুই দলের ক্রিকেটারদের করোনা পরীক্ষা হয়েছে। কিন্তু পরীক্ষার রিপোর্ট প্রকাশ করতে নারাজ বিসিবি। জানা গেছে, পরীক্ষার ফলাফল শুধু দুই দলকেই জানানো হবে। সেভাবেই দুই বোর্ডের মধ্যে সিদ্ধান্ত হয়েছে। যদিও রাতে জানা গেছে, দুই দলের ক্রিকেটাররা করোনার প্রথম পরীক্ষায় নেগেটিভ রিপোর্ট পেয়েছেন।

ইত্তেফাক/টিএ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x