ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০১৯, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
২৬ °সে


‘বুড়োদের পুনর্বাসন কেন্দ্রে’ ন্যানি

‘বুড়োদের পুনর্বাসন কেন্দ্রে’ ন্যানি
পর্তুগিজ উইঙ্গার ন্যানি। ছবি-সংগৃহীত

ইউরোপের ফুটবলে যখন দিন ফুরিয়ে যায় তখন যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমায় ফুটবলাররা। সেখানে মেজর লিগ সকারে (এমএলএস) গিয়ে ক্যারিয়ার বাঁচিয়ে রাখে তারা। এ কারণে ফুটবল অঙ্গনে বৃদ্ধাশ্রম হিসেবেই পরিচিত এমলএস। ফুটবলের বুড়োদের সেই পুনর্বাসন কেন্দ্রে এবার যোগ দিলেন পর্তগিজ উইঙ্গার ন্যানি।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে চারবারের প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন ও ২০০৮ সালের উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপাজয়ী দলের সদস্য ন্যানি। এবার তিন বছরের চুক্তিতে গেলেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্লাব অরলান্ডো সিটিতে।

২০১৬ ইউরো শিরোপা জয়ী পর্তুগিজ দলের গর্বিত সদস্য ৩২ বছর বয়সী ন্যানি স্পোর্টিং লিসবন থেকে ফ্রি ট্রান্সফার চুক্তিতে ফ্লোরিডার দলটিতে যোগ দিয়েছেন। এ সম্পর্কে অরলান্ডো সিটির এক্সিউকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট লুইস মুজ্জি বলেছেন, ‘আমাদের দলটির জন্য এটা অত্যন্ত আনন্দের একটি দিন। ন্যানি তার দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা দিয়ে আমাদের ক্লাবকে সমৃদ্ধ করবে। সে একজন অসাধারণ উইঙ্গার। ম্যাচে তার প্রভাব অবশ্যই আমাদের উপকৃত করবে।’

আরও পড়ুন: গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি কুদ্দুস বয়াতি

গত বছর হতাশাজনক একটি মৌসুম কাটানোর পর ওরলান্ডো আবারো লড়াইয়ে ফিরে আসার লক্ষ্য স্থির করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় ন্যানিকে তারা দলভূক্ত করেছেন। ৩২ ম্যাচে মাত্র আটটিতে জয় ও চারটিতে ড্র নিয়ে এমএলএস’র দ্বিতীয় বাজে রেকর্ড গড়েছিল অরলান্ডো। ২৮ পয়ন্ট নিয়ে ইস্টার্ন কনফারেন্সে তাদের অবস্থান ছিলে একেবারে তলানিতে।

২০০৭ সালের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে জাতীয় দলের সতীর্থ ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে যোগদানের আগে স্পোর্টিংয়ে হয়ে ন্যানি ৫৮ ম্যাচে ৯ গোল করেছিলেন। ২০১৫ সালে ইউনাইটেড ছাড়ার আগ পর্যন্ত সব ধরনের প্রতিযোগিতায় ২৩০টি ম্যাচে করেছেন ৪১ গোল।

আবারো স্পোর্টিংয়ে ফিরে আসার আগে ন্যানি ফেনারব্যাচ, ভ্যালেন্সিয়া ও ল্যাজিওতে খেলেছেন।

ইত্তেফাক/কেআই

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৫ মে, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন