ঢাকা সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৬
৩৪ °সে


রদবদলের সুযোগ নিতে চায় বাংলাদেশ

আজ বিশ্বকাপের দল ঘোষণা

আজ বিশ্বকাপের দল ঘোষণা
বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ছবি-সংগৃহীত

আইসিসির বেঁধে দেওয়া সময় অনুযায়ী আগামী ২৩ এপ্রিল বিশ্বকাপের চূড়ান্ত দল ঘোষণার শেষ দিন। সে পর্যন্ত অপেক্ষা না করে আজই বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করে দিচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে এখানে একটা ‘কিন্তু’ আছে। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ীই আগামী ২২ মে পর্যন্ত দলে পরিবর্তন আনতে পারবে বোর্ডগুলো। আর সেই সুযোগটা নিতে চায় বিসিবি।

গতকাল বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন পরিষ্কার করে বলেছেন, দল ঘোষণার পর থেকে শুরু করে ঢাকা লিগ বা আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে কেউ ভালো করলে তার নাম ঢুকে যেতে পারে বিশ্বকাপের দলে।

আজই দল ঘোষণার কারণ সম্পর্কে বলতে গিয়ে এই সুবিধা নেওয়ার কথাই গতকাল বলছিলেন বিসিবি সভাপতি। তিনি বলেছেন, ‘আমার আগে একটা ধারণা ছিল যে, ১৮ তারিখের মধ্যে টিম ঘোষণা দিতে হবে এবং সেটা সহজে চেইঞ্জ করা যাবে না; যদি কোনো ইনজুরি না থাকে। আমরা এখন জানতে পেরেছি যে সময় আছে। ২২ মে পর্যন্ত সময় আছে, কাউকে না বলেই উই ক্যান চেইঞ্জ। আমাদের ট্রাই নেশনটা আছে, ওটা ১৮ তারিখ শেষ হয়ে যাচ্ছে, আমাদের তো একটা সময় আছেই।’

আরও পড়ুন : প্যারিসে আগুনে পুড়ল ৮৫০ বছরের প্রাচীন গির্জা

আপাতত দল চূড়ান্ত করায় নির্বাচকরা কিছু সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন বলেও বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন। কিছু নিশ্চিত খেলোয়াড়ের ফর্মহীনতা ও ইনজুরি দুশ্চিন্তায় রেখেছে তাদের। তাই দল ঘোষণার পরও চিন্তাভাবনা নির্বাচকরা চালিয়ে যাবেন বলেই জানানো হলো— ‘কয়েকটা কারণে সমস্যা হচ্ছে। একটা হচ্ছে যে আমাদের যাদেরকে নিয়ে চিন্তাভাবনা করছে, তাদের ফর্ম ভালো হচ্ছে না। এটা একটা ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছে। ইনজুরি একটা বড় ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেক খেলোয়াড়কেই আমরা ধরেছিলাম বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকবে। কিন্তু এখনো তারা পুরোপুরি সুস্থ না।’

বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের দল দিলেও আয়ারল্যান্ডে দলের সঙ্গে বাড়তি দুজন খেলোয়াড় যাবেন। ফলে ওই দুজনের সামনে মূল দলে ঢুকে যাওয়ার সুযোগ থাকবে। পাপন বলছিলেন, ‘আমরা বিশ্বকাপের জন্য ১৫ জনের নাম দিচ্ছি। ট্রাইনেশনে অ্যাট লিস্ট ১৭ জনের নাম যাচ্ছে। সো অ্যাডিশনাল দুজন তো থাকছেই। আমরা ওখান থেকেও ট্রাই করে দেখতে পারব, সেই সুযোগ রয়েছে।’

বিসিবি সভাপতি বলছিলেন, কিছু পজিশনে অনেক পছন্দ করার সুযোগ আছে নির্বাচকদের সামনে। সেটা নির্বাচকদের ভাবনার একটা কারণ ছিল। আবার কিছু পজিশনে সেরকম চিন্তাভাবনা করার দরকার হয়নি বলেই বলছিলেন বিসিবি সভাপতি।

তার কথা বোঝা গেল, তাসকিনের জায়গা হচ্ছে না দলে, ‘দেখা যায় এক পজিশনে অনেক অপশন আছে। আবার আরেক জায়গায় অনেক অপশন নেই। পেস বোলিংয়ে খুব আহামরি বক্তব্য নেই। রুবেল, মাশরাফি, মুস্তাফিজ, সাইফউদ্দিন যাচ্ছে। আরেকজন কে? তাসকিন? তাসকিন তো ইনজুরড। আমরা জানি না সে খেলতে পারবে কি না, ফর্মে ফিরলে কেমন করবে এইসব তো জানি না। আপনি খুব বেশি নাম পাবেন না। এখন আমরা ১৫ জনের নাম দিয়ে দিচ্ছি। বাট আমরা অপেক্ষা করছি ট্রাই নেশনের। সেখানেই ফাইনাল সিদ্ধান্ত নিবো।’

ইত্তেফাক/কেআই

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৪ জুন, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন