ঢাকা রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
২৬ °সে


বিশ্বকাপের আগেই মালিঙ্গার অবসর!

বিশ্বকাপের আগেই মালিঙ্গার অবসর!
লাসিথ মালিঙ্গা। ছবি-সংগৃহীত

শুধু বিশ্বকাপ খেলাই নয়, অধিনায়ক হিসেবে খেলার কথা ছিল লাসিথ মালিঙ্গার। তবে, বিশ্বকাপের ঠিক আগে অধিনায়কত্ব হারানোর জের ধরে বিশ্বকাপের আগেই অবসর নিয়ে বসতে পারেন এই পেসার।

ঘটনার সূত্রপাত বিশ্বকাপের দল ঘোষণার মধ্য দিয়ে। সেখানে সবচেয়ে বড় চমক হলো দ্বিমুথ করুণারত্নে। তিনি টেস্ট অধিনায়ক। ক’দিন আগে শিরোনামে এসেছিলেন মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাতে গিয়ে দুর্ঘটনা ঘটিয়ে। এবার আলোচনায় এলেন বিশ্বকাপের দলে উড়ে এসে অধিনায়ক হয়ে। চার বছর পর ওয়ানডে দলে এসেই বিশ্বকাপ অধিনায়ক হয়ে গেছেন দিমুথ করুনারত্নে।

শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপ দলে চমক এখানেই শেষ নয়। তাদের দলে জায়গা হয়নি সাবেক অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমাল, উপল থারাঙ্গা, নিরোশান ডিকওয়েলা, অফস্পিনার আকিলা ধনাঞ্জয়া ও দানুষ্কা গুনাতিলাকার। ওয়ানডে দলের এইসব নিয়মিত মুখের বদলে শ্রীলঙ্কার নির্বাচকরা বিশ্বকাপে আস্থা রাখছেন দলে ফেরা লাহিরু থিরিমান্নে, মিলিন্দা সিরিবর্ধনা, জীবন মেন্ডিস, জেফরি ভ্যান্ডারসের মতো খেলোয়াড়দের ওপর।

আরও পড়ুন : যেভাবে এলো পবিত্র শবেবরাত

আলোচনা তুঙ্গে। তবে কিছু খেলোয়াড় খুব ক্ষুব্ধ বোর্ডের এমন সিদ্ধান্তে। সেই ক্ষোভ এতটাই যে, রীতিমতো অবসর নিয়ে ফেলার কথাও ভাবছেন তিনি। দল ঘোষণার ঘণ্টা খানেক পর শ্রীলঙ্কা দলের খেলোয়াড়দের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে নিজের ভাবনা ব্যক্ত করেন মালিঙ্গা। সেখানে তিনি লিখেন, ‘মাঠে আমাদের আর হয়তো দেখা হবে না। আমার পাশে যারা ছিলেন, ঈশ্বর তাদের মঙ্গল করুন।’

অবশ্য দল ঘোষণার আগে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের (এসএলসি) প্রধান নির্বাচক অশন্থা ডি মেল ফোন করেছিলেন মালিঙ্গাকে। তার কাছে প্রধান নির্বাচক জানতে চান, অধিনায়ক না হলে তিনি বিশ্বকাপে খেলবেন কি না। তখন কিছুই বলেননি মালিঙ্গা। কিন্তু পরে ঠিকই নিজের অবসর নিয়ে ইঙ্গিত দিয়েছেন মালিঙ্গা।

মালিঙ্গার অবসরের ইঙ্গিতের ব্যাপারে এসএলসির এক কর্মকর্তা জানান, ‘মালিঙ্গার অবসরের বিষয়টি স্পষ্ট নয়। মনে হচ্ছে, সে নিজে থেকেই সড়ে যেতে চাচ্ছে। তবে মালিঙ্গার বোঝা উচিত, দেশের হয়ে খেলা নেতৃত্বের থেকেও অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তার নেতৃত্বে ১৪টি ম্যাচের মধ্যে ১৩টিতেই শ্রীলঙ্কা হেরেছে। এটিও বোধ হয় সে জানে।’

চলতি বছর মালিঙ্গার নেতৃত্বে ওয়ানডেতে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে তিন ম্যাচ এবং দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয় শ্রীলঙ্কা। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্ট সিরিজে আচমকা অধিনায়কত্ব পেয়েই দলকে বিরাট সাফল্য এনে দেন করুনারত্নে। দুই ম্যাচের সিরিজে প্রোটিয়াদের হোয়াইটওয়াশ করে শ্রীলঙ্কা। প্রধান নির্বাচক বলেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকায় তার নেতৃত্ব দলকে একত্রিত করেছিল। সেই অভিজ্ঞতা থেকেই এবার দায়িত্ব পেয়েছেন করুনারত্নে।’

ইত্তেফাক/কেআই

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৬ মে, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন