ঢাকা রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
৩১ °সে


ফাইনালে গেল অপরাজিত বাংলাদেশ

ফাইনালে গেল অপরাজিত বাংলাদেশ
ওপেনিংয়ে জয়ের ভীত গড়ে দেয়া দুই ব্যাটসম্যান লিটন দাস ও তামিম ইকবাল। ছবি-সংগৃহীত

অপরাজিত থেকেই ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালের মঞ্চে চলে গেল বাংলাদেশ। বহুজাতিক টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের এটি সপ্তম ফাইনাল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের পর আয়ারল্যান্ডও বাংলাদেশের জয়ের পথে বাধা হতে পারেনি। গতকাল ডাবলিনের ক্লনটার্ফে অনায়াসেই আইরিশদের ছয় উইকেটে পরাজিত করেছে বাংলাদেশ। আগামীকাল ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি হবে মাশরাফি বাহিনী।

ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ম্যাচে আবু জায়েদ রাহী পাঁচ উইকেট নিলেও পল স্টারলিংয়ের সেঞ্চুরিতে আট উইকেটে ২৯২ রান তুলে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিল আয়ারল্যান্ড। জবাবে তিন হাফ সেঞ্চুরিতে ৪৩ ওভারে চার উইকেটে ২৯৪ রান তুলে ম্যাচ জিতে নেয় বাংলাদেশ। ৪২ বল আগে আসা জয়ে রাহী ম্যাচ সেরা হন।

রান তাড়া করতে নেমে তামিম-লিটনের হাফ সেঞ্চুরিতে ভালো শুরু পায় বাংলাদেশ। তামিম ক্যারিয়ারের ৪৬তম ও লিটন দ্বিতীয় হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন। তাদের ১১৭ রানের জুটিই জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছিল। ইনিংসের ১৭তম ওভারে র‌্যানকিনের বলে প্লেইড অন হওয়ার আগে তামিম ৫৭ রান করেন। লিটনও ফিরেছেন বোল্ড হয়ে। তিনি ৭৬ রান করেন।

তৃতীয় উইকেটে সাকিব-মুশফিকের ৬৪ রানের জুটি জয়ের পথে এগিয়ে নেয় বাংলাদেশকে। মুশফিক ফিরেন ৩৫ রান করে। পরে পেশীতে টান পড়ায় ৪২তম হাফ সেঞ্চুরি করে সাকিব অবসরে যান ৫০ রানের ইনিংস খেলে।

মোসাদ্দেক (১৪) দ্রুত ফিরলেও সাব্বিরকে নিয়ে বাকি পথ পাড়ি দেন মাহমুদউল্লাহ। চার মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন সাব্বির। মাহমুদউল্লাহ অপরাজিত ৩৫, সাব্বির অপরাজিত ৭ রান করেন। আয়ারল্যান্ডের র‌্যানকিন দুটি উইকেট নেন।

এর আগে গতকাল আনুষ্ঠানিকতার ম্যাচে একাদশে চার পরিবর্তন নিয়ে নামা বাংলাদেশ বোলিং, ফিল্ডিংয়ে ছিল বেশ নির্ভার। খোদ অধিনায়ক মাশরাফি বোলিংয়ে এসেছেন ২৯তম ওভারে ষষ্ঠ বোলার হিসেবে। আয়ারল্যান্ডের তিন শ ছুঁই ছুঁই স্কোর ও স্টারলিংয়ে সেঞ্চুরির পেছনে অবশ্য বাংলাদেশের ফিল্ডারদের অবদানই বেশি। মোসাদ্দেকের করা ইনিংসের ২১তম ওভারে সাব্বির ও পরের ওভারে সাকিবের বলে সাইফউদ্দিন ক্যাচ ফেলেন স্টারলিংয়ের।

শুরুতে ৫৯ রানে দুই উইকেট হারিয়েছিল আয়ারল্যান্ড। ম্যাককুলামকে (৫) রুবেল, বালবির্নিকে (২০) রাহী ফেরান। তৃতীয় উইকেটে অধিনায়ক পোর্টারফিল্ড-স্টারলিংয়ের ১৭৪ রানের জুটি ভাঙেন রাহী। পোর্টারফিল্ড ৯৪ রান করে আউট হন। ১২৭ বলে ক্যারিয়ারের অষ্টম সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন স্টারলিং। ৪৭তম ওভারে পরপর দুই বলে কেভিন ও’ব্রায়েন (৩), স্টারলিংকেও ফেরান রাহী। স্টারলিং ১৪১ বলে ১৩০ রানের (৮ চার, ৪ ছয়) ইনিংস খেলেন। গ্যারি উইলসনকে (১২) সাকিবের ক্যাচ বানিয়ে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ম্যাচেই পাঁচ উইকেট পাওয়ার কৃতিত্ব অর্জন করেন রাহী। ৫৮ রানে পাঁচ উইকেট নেন এই ডানহাতি পেসার।

শেষ ওভারে মার্ক এডেইর (১১) ও ডকরেল (৪) সাইফউদ্দিনের শিকার হওয়ায় তিন শ পার হয়নি আয়ারল্যান্ডের স্কোর। সাইফউদ্দিন দুটি, রুবেল একটি করে উইকেট পান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

আয়ারল্যান্ড : ২৯২/৮, ৫০ ওভার

বাংলাদেশ : ২৯৪/৪, ৪৩ ওভার

ফলাফল : বাংলাদেশ ছয় উইকেটে জয়ী।

ইত্তেফাক/কেআই

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৬ মে, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন