পিএসজি ছাড়ছেন এমবাপে!

প্রকাশ : ২১ মে ২০১৯, ০৩:১৬ | অনলাইন সংস্করণ

  স্পোর্টস ডেস্ক

পিএসজির ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপে

পিএসজির ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপে গেল মাসেই ভক্ত-সমর্থকদের আশ্বস্ত করেছিলেন যে, আগামী মৌসুমেও প্যারিসেই থাকছেন তিনি। মাস না গড়াতেই এবার দল ছাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন ফরাসি এই উইঙ্গার। রবিবার লিগ ওয়ানের সেরা খেলোয়াড় ও সেরা উদীয়মান খেলোয়াড়ের পুরস্কার গ্রহণকালে এ কথা জানান তিনি।

গেল গ্রীষ্ম থেকেই সময়টা দারুণ কাটছে এমবাপের। রাশিয়ায় ফুটবলের বিশ্বআসরে চারটি গুরুত্বপূর্ণ গোল করে ফ্রান্সকে বিশ্বকাপ জেতাতে দারুণ ভূমিকা পালন করেছিলেন, নিজেও জিতেছিলেন বিশ্বকাপের সেরা উদীয়মান খেলোয়াড়ের পুরস্কার। এরপর ব্যালন ডি অর পুরস্কারের অনুষ্ঠানেও জিতেছিলেন সেরা উদীয়মান ফুটবলারের পুরস্কার। এরপর ৩২ গোল করে পিএসজিকে জিতিয়েছেন ঘরোয়া লিগ। যারই ফলে তার হাতে উঠেছে ফরাসি লিগের বর্ষসেরা ও সেরা উদীয়মানের পুরস্কার।

জোড়া স্বীকৃতি পেয়ে তিনি উচ্ছ্বসি। বলেন, ‘এটাই এমন একটা শিরোপা যা এতোদিন আমি পাইনি। আমি সত্যিই অনেক খুশি। আমি সব মানুষকে ধন্যবাদ দিতে চাই যাদের সম্মিলিত প্রয়াসে লিগটা চলে। পরিবর্তিত জায়গায়, পরিবর্তিত খেলার ধরনে মানিয়ে নেওয়ার প্রথম বছর ছিল এটি যাতে আমি উত্তীর্ণই হয়েছি।’

ঘরোয়া সাফল্য পেলেও ইউরোপীয় প্রতিযোগিতায় দলকে সাফল্য এনে দিতে পারেননি তিনি। এমবাপে একে দেখছেন খেলার অংশ হিসেবেই। তিনি বলেন, ‘কিছু হতাশার মুহূর্ত ছিল, কিন্তু এটা ফুটবলেরই একটা অংশ। এটা আমার জন্যে খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

গেল কিছুদিন ধরেই এমবাপের রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়ার গুঞ্জন ভালোভাবেই শোনা যাচ্ছে ফরাসি ও স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যমে। পিএসজি ফরোয়ার্ড কিছুটা কৌশলেই সামলাচ্ছেন ব্যাপারটিকে। তিনি বলেন, ‘ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় বাঁকে এসে দাঁড়াচ্ছি আমি। এখানে আমি অনেক বিশাল ব্যাপার আবিষ্কার করেছি।’

পিএসজি তরুণের দাবি, ফরাসি চ্যাম্পিয়ন দলে হোক কিংবা অন্য কোথাও, যেখানেই থাকুন না কেন আরো বেশি দায়িত্বের ভার চান তিনি। এমবাপের ভাষায়, ‘এটা সম্ভবত আরো বেশি দায়িত্বভার গ্রহণের সময়। সেটা পিএসজিতেই ঘটতে পারে, আর তা হলে অনেক খুশি হব আমি। অথবা অন্য কোথাও, নতুন কোনো প্রকল্পেও হতে পারে সেটা।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমার যা বলার ছিল তা আমি ইতোমধ্যেই বলে দিয়েছি। যখন আপনি এমন উপলক্ষে উপনীত হন, আপনার বার্তা প্রেরণ করা উচিত। আমি মনে করি, আমি তা করেছি। আমি যদি আরো বেশি কথা বলি তবে এটা বেশিই হয়ে যাবে আর এটা আমি যে বার্তা দিতে চেয়েছিলাম তা বহন করবে না মোটেও।’