ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২১ °সে


বাড়তি সিরিজের আশায় বিসিবি

বাড়তি সিরিজের আশায় বিসিবি
সৌরভ গাঙ্গুলি। ছবি: সংগৃহীত

রবিবার সন্ধ্যা থেকেই খবরটা চাউর হয়েছিল। অনেক নাটকীয়তা পেরিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি হতে যাচ্ছেন সৌরভ গাঙ্গুলি। এই খবরে আনন্দের জোয়ার বইছে কলকাতায়। যার ছিটেফোঁটা আছড়ে পড়ছে সীমান্তের এপাড়েও। বাঙালিবাবু গাঙ্গুলির সভাপতি হওয়ার খবরে উদ্বেলিত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি)। কলকাতার মহারাজের মাধ্যমে ভারতীয় ক্রিকেট থেকে বাড়তি সুবিধা পাওয়ার আশা করছে বিসিবি।

গাঙ্গুলির বিসিসিআই সভাপতি হলে বাংলাদেশের লাভবান হতে পারে উল্লেখ করে বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস গতকাল বলেছেন, ‘বিসিসিআইয়ের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক ভালো। যারা এখন দায়িত্বে আছে তাদের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক ভালো আছে, আগেও ছিল। সৌরভ গাঙ্গুলি একজন বাঙালি, সাবেক ক্রিকেটার। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই বাড়তি একটা সুবিধা আমরা পাব। কোনো ইস্যু নিয়ে তার সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করতে স্বাচ্ছন্দ্য অনুভব করব।’

২০০০ সালে বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টে ভারতের নেতৃত্বে ছিলেন গাঙ্গুলি। বর্তমান সময়ে ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর দেশ ভারত। প্রতিবেশী হলেও গত ১৯ বছরে মাত্র দুইবার নিজ দেশে বাংলাদেশ জাতীয় দলকে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে আতিথ্য দিয়েছে ভারত। গাঙ্গুলি বিসিসিআইয়ের মসনদে বসলে বাড়তি সিরিজের আশা করতেই পারে বাংলাদেশ। আগামী মাসেই ভারত সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল।

বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গনের অনেকের সঙ্গেই ব্যক্তিগত পর্যায়ে সম্পর্ক আছে গাঙ্গুলির। যা বিভিন্ন পর্যায়ে দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সিরিজ বাড়াতে সাহায্য করবে। জালাল ইউনুস বলেছেন, ‘এখানে আমাদের অনেকের সঙ্গে তার ব্যক্তিগত সম্পর্ক আছে। বাংলাদেশে অনেকবার খেলে গেছেন। সে খুবই তরুণ। আমাদের এখানের অনেকের সঙ্গে তার আত্মার সম্পর্ক আছে ব্যক্তিগতভাবে। এগুলো অবশ্যই কাজে লাগবে। ভারত থেকে আমরা যে সিরিজগুলো আগে পাইনি, দ্বিপাক্ষিক কিংবা জুনিয়র লেভেলের ম্যাচ; সেগুলো আমরা তার সঙ্গে খুব ভালোভাবে আলাপ করতে পারব। এই সুযোগটা অবশ্যই আছে।’

ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর পর ক্রিকেট প্রশাসক হিসেবে নতুন ক্যারিয়ার শুরু করেন সৌরভ গাঙ্গুলি। কোচিং ক্যারিয়ারের পথেই হাঁটেননি। ধারাভাষ্যকার হিসেবে কাজ করেছেন বিভিন্ন আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে। জগমোহন ডালমিয়ার মৃত্যুর পর ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের (সিএবি) সভাপতি হন ভারতের এই সাবেক অধিনায়ক। আগামী ২৩ অক্টোবর এজিএম হবে বিসিসিআইয়ের। সেখানেই চূড়ান্ত আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হবে। তার আগে নানা মেরুকরণের পর গাঙ্গুলিকে সভাপতি মনোনীত করার প্রক্রিয়া প্রায় সম্পন্ন হয়ে গেছে। সভাপতি পদে তিনি ছাড়া আর কেউ মনোনয়নপত্রই জমা দেননি।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন