বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭
২৮ °সে

চলছে রোহিতের ব্যাটিং মেশিন আবার বিপাকে দ. আফ্রিকা

চলছে রোহিতের ব্যাটিং মেশিন আবার বিপাকে দ. আফ্রিকা
রোহিত শর্মা।ছবি: ইত্তেফাক

আগের ম্যাচের মতো একই চিত্রনাট্য ধরে চলছে রাচি টেস্ট। ম্যাচের প্রথম দুই দিনের অধিকাংশ সময় ধরে ভারতের ব্যাটিং দাপট এবং দ্বিতীয় দিন শেষ বিকালে এসে দক্ষিণ আফ্রিকার ধসের শুরু। মিল আরো একটা—আরো একবার ভারতের ব্যাটিংয়ের প্রধান ভরসা হয়ে উঠলেন টেস্টেও সরূপ দেখাতে থাকা রোহিত শর্মা। এবার তুলে নিলেন ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি।

রোহিতের ডাবল সেঞ্চুরি, আজিঙ্কা রাহানের দীর্ঘদিন পরের সেঞ্চুরি, রবীন্দ্র জাদেজার আরেকটা ফিফটি ও উমেশ যাদবের ক্যামিওতে ভর করে ভারত ৯ উইকেটে ৪৯৭ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করেছে গতকাল। জবাবে শেষ বিকালে ৫ ওভার ব্যাটিং করার সুযোগ পেয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। তাতেই ৯ রান তুলতে দুই ওপেনারের উইকেট হারিয়ে ফেলেছে তারা।

প্রথম দিনে ৩৯ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল ভারত। সেখান থেকে দলকে ২৬৭ রানের জুটি এনে দেন রোহিত ও রাহানে। রাহানে ১৯২ বলে ১১৫ রান করে আউট হন। এটা ২০১৬ সালের পর তার প্রথম দেশের মাটিতে সেঞ্চুরি। জাদেজার সঙ্গে আরো খানিকটা সময় ব্যাট করেছেন রোহিত।

প্রথম টেস্টের দুই ইনিংসে যথাক্রমে ১৭৬ ও ১২৭ রান করেছিলেন রোহিত। এবার গিয়ে থামলেন ২১২ রানে। ২৫৫ বলে ২৮টি চার ও ৬টি ছক্কায় সাজানো ছিল তার এই ইনিংস।

রাহাতে ও রোহিতই ভারতকে রান পাহাড়ে তুলে দিয়ে গিয়েছিলেন। তবে দ্বিতীয় দিন শেষ বিকালে স্বস্তির সঙ্গে ইনিংস ঘোষণা করার স্বাচ্ছন্দ্যটা এনে দেন জাদেজা ও উমেশ যাদব। জাদেজা এই সিরিজে আরো একটা ফিফটি করলেন; ৫১ রান করে আউট হলেন। তবে মজার ইনিংসটা খেলেন যাদব। তিনি ১০ বলে ৩১ রান করেন; এই পথে ৫টি ছক্কা মারেন তিনি।

বোলারদের এই হতাশার দিনেও দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে উজ্জ্বল ছিলেন জর্জ লিন্ডে। অভিষেক টেস্ট খেলতে নেমে তিনি তুলে নিয়েছেন ৪ উইকেট। আর কাগিসো রাবাদা নেন ৩ উইকেট।

দিনের খেলা আলোকস্বল্পতার জন্য আগেভাগে শেষ হয়ে যায়। তার আগেই বিপর্যয়ে পড়ে আফ্রিকানরা। উমেশ যাদব ও মোহাম্মদ শামি ১টি করে ওভার বল করেন। তাতে দুই জনে তুলে নেন দুই আফ্রিকান ওপেনারের উইকেট। এরপর দিনের বাকিটা সময় কোনোক্রমে পার করেছেন জুবায়ের হামজা ও ফাফ ডু প্লেসি।

ইত্তেফাক/আরকেজি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত