করোনা রোগীর মৃত্যু ঝুঁকি কমাতে পারে না রেমিডেসিভির: ডব্লিউএইচও

করোনা রোগীর মৃত্যু ঝুঁকি কমাতে পারে না রেমিডেসিভির: ডব্লিউএইচও
প্রতীকী ছবি।

করোনায় আক্রান্তদের রোগীদের মৃত্যু ঝুঁকি কমাতে পারে না গিলিয়াড সায়েন্সের তৈরি ওষুধ রেমিডেসিভির। পাশাপাশি করোনা রোগীদের ওপর তেমন কোনো প্রভাবও ফেলতে পারে না এই ওষুধটি। রেমিডিসেভির নিয়ে ট্রায়ালের পর মেডআরসিভ' নামের মেডিক্যাল ওয়েবসাইটে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার এমনটি জানানো হয়েছে। তবে ট্রায়ালের ফল এখনো পিয়ার-রিভিউ করা হয়নি ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়, ট্রায়ালে ৩০ টি দেশের ১১ হাজার ২২৬ জন প্রাপ্ত বয়স্ক করোনা রোগীর ওপর রেমিডেসিভির, হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন এবং এইচআইভি প্রতিরোধক ওষুধ প্রয়োগ করা হয়। ট্রায়ালের দেখা যায়, রেমিডেসিভির ওষুধটি ব্যবহারের পর রোগীদের হাসপাতালে থাকার সময় অথবা মৃত্যুর ঝুঁকি কোনোটি কমেনি।

এর আগে বিভিন্ন প্রান্তের ১০৬৩ মানুষের ওপর গবেষণা চালায় গিলিয়াড । এদের একাংশকে রেমডেসিভির দেওয়া হয়েছিল। বাকীদের দেওয়া হয়েছিল ভুয়া ওষুধ (প্লেসেবো)। গবেষণায় দেখা যায়, রেমডেসিভির গ্রহণকারীরা গড়ে ১১ দিনের মধ্যে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছে। অন্যদিকে প্লেসেবো গ্রহণকারীদের ছাড়া পেতে সময় লেগেছে গড়ে ১৫ দিন।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই ট্রায়াল নিয়ে গিলিয়াডের পক্ষ থেকে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলা হয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যে তথ্য দেখিয়েছে সেটি অসঙ্গত। নিয়ন্ত্রিত ট্রায়ালের ফলগুলো পিয়ার-রিভিউয়ের মাধ্যমে জার্নালগুলোতে প্রকাশিত হয়েছে এবং সেগুলোই রেমিডেসিভিরের ক্লিনিক্যালের কার্যকারিতাকে সমর্থন কর ।

সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকেও রেমিডেসিভির দিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছিল। ইতিমধ্যে করোনা চিকিৎসার জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রেমিডেসিভির ওষুধ অনুমোদন পেয়েছে। গত ১ মে করোনা চিকিৎসায় জরুরি প্রয়োজনে রেমিডেসিভির ওষুধ ব্যবহারের অনুমোদন দেয় মার্কিন কর্তৃপক্ষ।

ইত্তেফাক/এআর

ঘটনা পরিক্রমা : করোনা ভাইরাস

পরবর্তী
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত