২০২১ সাল হবে সম্ভাবনার বছর

২০২১ সাল হবে সম্ভাবনার বছর
মহামারির ধাক্কা সামলে নিয়ে বাংলাদেশ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে

২০২০ সালের প্রতিকূল পরিস্থিতির অভিজ্ঞতা ২০২১ সালে কাজে লাগাতে পারলে বাংলাদেশ হবে সারা বিশ্বের জন্য একটি দৃষ্টান্ত। কারণ, মহামারির ধাক্কা সামলে নিয়ে বাংলাদেশ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। এখনো গ্রামীণ অর্থনীতি চাঙা রয়েছে। প্রবাসী আয় দ্রুত গতিতে বাড়ছে। রফতানি আয় বাড়ছে। মেগা প্রকল্পেও গতি এসেছে। সংকটে থাকা শেয়ারবাজার এখন প্রাণ খুঁজে পেয়েছে। ব্যাপক বিনিয়োগের জন্য পর্যাপ্ত টাকা রয়েছে ব্যাংকের কাছে। দেশি-বিদেশি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোও বলছে, বাংলাদেশের অর্থনীতি এগিয়ে চলছে। সম্প্রতি বিশ্বব্যাংকের পূর্বাভাস প্রতিবেদনে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি (১.৬ শতাংশ) প্রবৃদ্ধির প্রত্যাশা করা হয়েছে। যদিও সরকারি লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে এটি কম। তার পরেও করোনার এই সময়ে ধনাত্মক প্রবৃদ্ধি খুব কম দেশই ধরে রাখতে পেরেছে।

২০২০ সালের করোনার আঘাতের পরও দেশের অর্থনীতির যেসব সূচক ভালো অবস্থানে দাঁড়িয়ে আছে, সেগুলো ২০২১ সালে আরো শক্তিশালী হওয়ার আশা করা হচ্ছে। দ্বিতীয় ধাপের করোনায় যদি লকডাউনে যেতে না হয়, তাহলে অর্থনীতির সব সূচকই গতিশীল হবে। প্রবাসী আয়সহ অর্থনীতির বেশ কয়েকটি সূচক এরই মধ্যে শক্তিশালী অবস্থায় রয়েছে।

করোনা ভাইরাস মহামারিতে বিশ্বের অর্থনীতি স্থবির হয়ে পড়ায় গত এপ্রিলে বাংলাদেশের রফতানি আয় তলানিতে ঠেকেছিল। ঐ মাসে সব মিলিয়ে মাত্র ৫২ কোটি ডলারের পণ্য রফতানি হয়েছিল। পোশাক রফতানি থেকে আয় হয়েছিল মাত্র ৩৬ কোটি ডলার। এর পর মে মাসে রফতানি আয় বাড়তে শুরু করে। জুনে তার চেয়ে অনেক বাড়ে। এরপর চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম তিন মাসেও সেই ইতিবাচক ধারা অব্যাহত ছিল। করোনার কারণে লকডাউন আর বিদেশি শ্রমিক-প্রকৌশলীদের অনেকে দেশে ফিরে যাওয়ায় ২০২০ সালে সরকারের অগ্রাধিকারে থাকা পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল ও কর্ণফুলী টানেলের মতো বড় প্রকল্পের কাজ এগোতে পারেনি কাঙ্ক্ষিত দ্রুততায়। তবে বছরের শেষ দিকে এসে গতি পেয়েছে অধিকাংশ প্রকল্প। নতুন বছরে মেগা প্রকল্পে গতির মাধ্যমে অর্থনীতি চাঙ্গা থাকবে এমনটাই প্রত্যাশা সবার।

করোনার বছর ২০২০ কাটিয়ে এসেছে ২০২১। হাজারো মানুষের স্বজন হারানো, চাকরি হারানো, পুঁজি হারানো, অর্থনীতিকে স্থবির করা বছর ২০২০ সালকে পেছনে ফেলে নতুন বছরটি বাংলাদেশের জন্য হবে সম্ভাবনার। ২০৩০ সালের মধ্যে ৫০ বিলিয়ন ডলারের শক্তিশালী রিজার্ভ গড়ার লক্ষ্য অর্জনের কাছাকাছি ২০২১ সালেই পৌঁছে যাবে বাংলাদেশ। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বাংলাদেশের সব মানুষ টিকা পেতে সময় লাগলেও উন্নত দেশগুলো আগেই টিকা পেয়ে যাচ্ছে। ফলে তাদের কেনাকাটা, ভ্রমণ, ভোগ ব্যয় বাড়বে। এর ফলে আমাদের রফতানি ও শ্রমবাজার আবার ঘুরে দাঁড়াবে নতুন বছরে।

ইত্তেফাক/কেকে

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত