পঙ্গপাল বিক্রি করে কৃষকের মুখে হাসি

পঙ্গপাল বিক্রি করে কৃষকের মুখে হাসি
পঙ্গপাল। ছবি: সংগৃহীত

কৃষকদের কাছে আতঙ্কের নাম পঙ্গপাল। রাক্ষুসে এই কীট চোখের পলকে নষ্ট করে দেয় শত শত একর জমির ফসল। এ কারণেই পঙ্গপালের আক্রমণে ভীষণ অসহায় হয়ে পড়েছিলেন কেনিয়ার রুমুরুতি এলাকার কৃষকরা। তবে তাদের মুখে হাসি ফুটিয়েছে 'দ্যা বাগ পিকচার' নামের একটি স্টার্ট-আপ কোম্পানি।

কৃষকদের কাছ থেকে পঙ্গপাল কিনছে প্রতিষ্ঠানটি। প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে প্রায় ৪৫ সেন্টে, যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৪৩ টাকা। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) এমন তথ্যই জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম ডয়চে ভেলে।

খবরে বলা হয়েছে, পঙ্গপাল ধরে বস্তায় ভরে কৃষকরা বাগ পিকচারের কর্মীদের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন। কৃষকদের কাছ থেকে কেনা পঙ্গপাল বস্তায় ভরে ট্রাকে করে নিয়ে যাচ্ছে বাগ পিকচারের কর্মীরা। তারা জানিয়েছেন, বস্তায় ভরে আনা রাক্ষুসে পঙ্গপাল প্রথমে ভালো করে শুকানো হচ্ছে। এরপর তা গুঁড়ো করা হচ্ছে। পরে পরীক্ষাগারে নেওয়া হচ্ছে সেই গুঁড়ো। তারা আরও বলছেন, প্রোটিনের মাত্রা পরীক্ষা করে দেখার পর তা মানসম্মত হলে গুঁড়ো পশুখাদ্য হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এটি ফসলের ক্ষেতে জৈবসার হিসেবেও দারুণ কার্যকর।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, পঙ্গপালের গুঁড়োয় প্রোটিনের মাত্রা যথেষ্ট। এই গুঁড়ো খাদ্য হিসেবে পশুকে খাওয়ালে যথেষ্ট প্রোটিনের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব। গরু-ছাগল, হাঁস-মুরগিকে খাওয়ানো যাবে। শুধু তাই নয়, জৈবসার হিসেবে ফসলের ক্ষেতেও পঙ্গপালের গুঁড়ো ব্যবহার করা যাবে। ফসলের ক্ষেতে পঙ্গপালের গুঁড়ো ফলন বৃদ্ধিতে সহায়তা করছে বলেও জানিয়েছেন গবেষকরা।

ইত্তেফাক/এসএ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x