পুলিশ বাবাকে ক্যাপ্টেন কন্যার স্যালুট, ফেসবুকে ভাইরাল

পুলিশ বাবাকে ক্যাপ্টেন কন্যার স্যালুট, ফেসবুকে ভাইরাল
বাবার প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জানাতে তাকে স্যালুট করছে মেয়ে। ছবি: ইত্তেফাক

সেনাবাহিনীতে ক্যাপ্টেন হিসেবে যোগ দিয়ে বাড়িতে আসেন শাহনাজ। বাড়িতে এসে তার পুলিশ কর্মকর্তা বাবার প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জানাতে তাকে স্যালুট করেন ক্যাপ্টেন। আকস্মিক ঘটনায় আপ্লুত হয়ে যান বাবা এসআই আব্দুস সালাম। তিনিও তার ক্যাপ্টেন কন্যাকে স্যালুট করেন। আর অসাধারণ এই মুহূর্তটি পরিবারের একজন ক্যামেরাবন্দি করে আপলোড করেন ফেসবুকে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, পুলিশ কর্মকর্তা আব্দুস সালাম রংপুরের গঙ্গাচড়া মডেল থানার সাব-ইন্সপেক্টর। আব্দুস সালামের তিন মেয়ের মধ্যে শাহনাজ বড়। রংপুর মেডিকেল কলেজ থেকে ডাক্তারি পাস করার পর গত বছর ইন্টার্ন শেষ করে চলতি বছর সেনাবাহিনীতে ক্যাপ্টেন পদে যোগদান করেন তিনি।

আবদুস সালাম জানান, শিক্ষাজীবনের প্রতিটি ধাপ আমার মেয়ে কৃতিত্বের সঙ্গে শেষ করেছে। সেনাবাহিনীতে ক্যাপ্টেন হিসেবে যোগ দেওয়ায় আমি মহান আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞ। তিনি মেয়ের সুন্দর কর্মজীবন এবং ব্যক্তিজীবনের জন্য দোয়া চেয়েছেন সবার কাছে।

সম্প্রতি এই পুলিশ বাবা আর চিকিৎসক মেয়ের একটি ছবি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ছবিতে দেখা গেছে তারা একে-অপরকে সামরিক কায়দায় অভিবাদন (স্যালুট) জানাচ্ছেন। ছবির পেছনের গল্পে জানা গেল, পুলিশ বাবার চিকিৎসক মেয়ে সম্প্রতি সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন পদে চাকরি পেয়েছেন। সে সুবাদে বাবা-মেয়ে অভিবাদন বিনিময় করেছেন।

No description available.

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া বাবা-মেয়ের এই ছবি ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে। বেশিরভাগ মানুষই সেখানে বাবা-মেয়ে দুজনকেই প্রশংসায় ভাসিয়েছেন। পদমর্যাদার চেয়ে রক্তের বন্ধন হৃদয় ছুঁয়েছে সবার। হাজারো মানুষের ভালোবাসা, শুভ কামনা আর অভিনন্দন বার্তায় সিক্ত হচ্ছেন সেনাবাহিনীতে সদ্য চাকরি প্রাপ্ত ক্যাপ্টেন ডা. শাহনাজ পারভীন। আব্দুস সালামের গ্রামের বাড়ি কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার চন্দ্রখানায়। বর্তমানে চাকরির সুবাদে তিনি পরিবার নিয়ে রংপুরে রয়েছেন।

ইত্তেফাক/ইউবি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x