নিখোঁজের ৪ দিন পর ফটোগ্রাফারের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

নিখোঁজের ৪ দিন পর ফটোগ্রাফারের গলাকাটা লাশ উদ্ধার
নিহত ফটোগ্রাফার আনন্দ সরকার। ছবি: সংগৃহীত

নিখোঁজের চারদিন পর আনন্দ সরকার নামে (২৩) এক ফটোগ্রাফারের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে সিআইডি। বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে সিএ মার্কেট বাসস্ট্যান্ড এলাকার কামাল কমিউনিটি সেন্টারের মার্কেটে স্টুডিও দোকানের ভেতর থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত আনন্দ সরকার নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলার বাইনারী ইউনিয়নের বটতলী গ্রামের সুণীল চন্দ সরকারের ছেলে। তিনি পাঁচ বছর ধরে জগন্নাথপুর উপজেলার পৌর শহরের একটি স্টুডিওতে প্রথমে চাকরি নেন। পরে নিজ নামে আনন্দ স্টুডিও দোকান খুলে ব্যবসা করছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার সকাল থেকেই স্টুডিওটি বাইরে থেকে তালাবদ্ধ রয়েছে। অনেকে মনে করেছিলেন আনন্দ সরকার হয়তোবা কোনো বিয়ের অনুষ্ঠানে ছবি তোলার জন্য গেছেন। এদিকে এনজিও থেকে ঋণের টাকা উত্তোলনের পর দুর্বৃত্তরা টাকার লোভে তাকে নৃশংসভাবে খুন করেছে বলে এমন ধারণা করছেন অনেকেই।

নিহত আনন্দ সরকারের মা জোছনা রাণী সরকার জানান, সোমবার রাত ৮টায় আমার ছেলের সঙ্গে মুঠোফোনে শেষবারের মত কথা হয়। এরপর থেকে তার সঙ্গে আর কথা হয়নি। পরদিন সকালে আমার ছেলেকে ফোন করলে সেটা বন্ধ পাই। এভাবে তিনদিন মোবাইল বন্ধ পাওয়ায় বৃহস্পতিবার সকালে জগন্নাথপুর এসে আমার ছেলের দোকান বন্ধ পেয়ে প্রথমে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে এবং পরে থানায় জানাই। পরে জানতে পারি তালাবদ্ধ দোকানের ভেতরে আমার ছেলের মৃতদেহ রয়েছে।

জগন্নাথপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, আনন্দ সরকারকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। আমরা বিভিন্ন মাধ্যমে তদন্ত কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। লাশটি উদ্ধার করে উপজেলার মরচুয়ারীতে রাখা হয়েছে। শুক্রবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জের মর্গে পাঠানো হবে।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত