ঢাকা সোমবার, ২০ জানুয়ারি ২০২০, ৭ মাঘ ১৪২৭
১৯ °সে

শ্লীলতাহানির বিচার না পেয়ে মির্জাপুরে ছাত্রীর আত্মহত্যা

প্রভাবশালী মহলের চাপে মামলা করছে না পরিবার
শ্লীলতাহানির বিচার না পেয়ে মির্জাপুরে ছাত্রীর আত্মহত্যা
সুমাইয়া আক্তার। ছবি: ইত্তেফাক

স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে এসএসসি পরীক্ষার্থী এক ছাত্রীকে প্রকাশ্যে একই ক্লাসের বখাটে ছাত্র শ্লীলতাহানির ঘটনা ঘটিয়েছে। ঘটনার মূলহোতা স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্যের পুত্র। শ্লীলতাহানির ঘটনায় স্কুল কর্তৃপক্ষ ও বখাটের পরিবারের কাছে বিচার না পেয়ে ঐ ছাত্রী ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

প্রভাবশালী মহলের চাপে ঘটনা ধাপাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। ঘটনার পাঁচ দিন পরও মামলা না হওয়ায় এলাকায় বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। ৬ নম্বর আনাইতারা ইউনিয়নের মশাজান গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার গ্রামে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে।

প্রভাবশালী মহল ও মূলহোতার পরিবারের চাপে ছাত্রীর পরিবার মুখ খুলতে এবং থানায় লিখিত অভিযোগ দিতে সাহস পাচ্ছে না বলে ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর আলম জানিয়েছেন।

ঐ ছাত্রীর নাম সুমাইয়া আক্তার (১৬)। পিতার নাম মৃত মো. লিয়াকত হোসেন। সুমাইয়া হাট ফতেপুর ময়নাল হক উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী। তার ক্লাস রোল-৫। তার অসহায় পরিবার ও সহপাঠীরা অভিযোগ করেছে, স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য শাহ মাজমুল হক চানমনার বখাটে পুত্র শাহ মাহিনুল হক সোয়াদ (১৭) তাকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। সুমাইয়া ঘটনা বিদ্যালয়ের শিক্ষক, পরিবার ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের জানিয়েছিল।

এলাকাবাসীর মধ্যে সাদেক, আব্দুল আজিজ ও ফারুক হোসেনসহ অনেকেই অভিযোগ করেন, রবিবার স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তায় একা পেয়ে সুমাইয়াকে শ্লীলতাহানি করে বখাটে সোয়াদ। বিচার না পেয়ে লোকলজ্জায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে সুমাইয়া। চিরকুটে আত্মহত্যার বিস্তারিত লেখা ছিল। কিন্তু পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার পূর্বেই চিরকুট গোপন করে ফেলা হয়। সুমাইয়ার পরিবার লাশ ময়নাতদন্তের চেষ্টা করলেও সোয়াদের পক্ষের মাতব্বররা উলটো বুঝিয়ে বিনা ময়নাতদন্তে লাশ দাফন করে।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২০ জানুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন