ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
৩১ °সে

সাবেক চেয়ারম্যানকে আহত করল বর্তমান চেয়ারম্যান, হাসপাতালে দেখতে উপ-মন্ত্রী এনামুল হক

সাবেক চেয়ারম্যানকে আহত করল বর্তমান চেয়ারম্যান, হাসপাতালে দেখতে উপ-মন্ত্রী এনামুল হক
সাবেক চেয়ারম্যানকে আহত করল বর্তমান চেয়ারম্যান, হাসপাতালে দেখতে পানি সম্পদ উপ-মন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম। ছবি: সংগৃহীত।

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন মাতব্বরকে (৫৪) পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে বর্তমান চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন তালুকদারের বিরুদ্ধে। এদিকে এ ঘটনায় সাবেক এই চেয়ারম্যান ও বর্তমানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সালাউদ্দিনকে দেখতে রবিবার হাসপাতালে আসেন পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের উপ-মন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম।

সাবেক চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন ও তার সমর্থকেরা অভিযোগ করেন, বর্তমান চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে তাদের ওপর এ হামলা চালানো হয়। এই ঘটনায় ভেদরগঞ্জ থানায় অভিযোগ করেছেন নির্যাতনের শিকার সালাউদ্দিন। এ ঘটনায় আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করবেন বলে জানিয়েছেন ওসি মো. নজরুল ইসলাম।

২৮ মার্চ শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ইকরকান্দি ৫৬ নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় রাকিয়া বেগম নামে স্থানীয় আরও এক মহিলা আহত হয়। এলাকাবাসী আহত সালাউদ্দিন ও রাকিয়া বেগমকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

স্থানীয় ফরহাদ মাতব্বর, জহিরুল ইসলাম ও আবুল কাশেম জানান, এলাকার রাজনীতি ও ইউপি নির্বাচন নিয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন তালুকদার ও তাঁর পরিবারের সঙ্গে সালাউদ্দিন মাতব্বরের বিরোধ রয়েছে। গত ইউপি নির্বাচনের পর থেকে সালাউদ্দিন পরিবার নিয়ে ঢাকায় থাকতেন। কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস আতঙ্কে সম্প্রতি তিনি নারায়নপুর গ্রামের বাড়িতে এসেছেন। শনিবার সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজ পড়ার জন্য বাড়ি থেকে ইকরকান্দি খান বাড়ি মসজিদে রওনা দেন তিনি। রাস্তায় যাওয়ার পথে বর্তমান চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন তালুকদার, তার ভাই মফিজ তালুকদার, রাজিব তালুকদার, মালেক তালুকদার, মিন্টু বেপারী, অমি তালুকদারসহ ২০ থেকে ৩০ জন সাবেক চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন মাতব্বরের ওপর হামলা চালায়। এ সময় লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে সালাউদ্দিনের মাথায় ও পায়ে গুরুতর জখম করা হয়। তাকে রক্ষা করতে আসা রাকিয়া বেগম নামে এক নারীও আহত হন।

চিকিৎসাধীন আহত সালাউদ্দিন মাতব্বর বলেন, তিনি নারায়নপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ছিলেন। গত ইউপি নির্বাচনে নাজিম উদ্দিন তালুকদারের ভাই নাসির উদ্দিন তালুকদার নির্বাচিত হয়। নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা শোনার পরই বিজয়ী চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন আকস্মিক মৃত্যু হয়। পরে নাজিম উদ্দিন তালুকদারের ভাই সরকারের সাবেক সচিব কামাল উদ্দিন তালুকদার ক্ষমতা প্রয়োগ করে নাজিম উদ্দিন কে চেয়ারম্যান বানায়। বিগত সময়ে নাজিম উদ্দিন এলাকার মানুষদের অধিকার বঞ্চিত করেছে। সামনে নির্বাচন আসছে। আমার জনপ্রিয়তা দেখে এখন নাজিম উদ্দিনের মাঝে ভয় কাজ করছে। আগামী নির্বাচনে আমি যেন প্রার্থী হতে না পারি সেই জন্যে নির্যাতন চালিয়ে আমাকে এলাকা ছাড়া করতে চেষ্টা করছে।

প্রত্যক্ষদর্শী মাজহারুল, ফরহাদ ও জহিরুল ইসলাম জানায়, শনিবার মাগরিবের ঠিক পূর্ব মূহুর্তে বর্তমান চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে ১০ থেকে ১৫টি মটর সাইকেল নিয়ে লোকজন এসে মসজিদের সামনেই সাবেক চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন মাতব্বরের ওপর হামলা চালায়। এলাকাবাসী এগিয়ে এলে হামলাকারীরা দ্রুত চলে যায়।

আহত রাকিয়া বেগম বলেন, শনিবার মাগরিবের পূর্বে মসজিদের পাশে শোরগেল শুনে ঘর থেকে বেরিয়ে আসি। তখন সালাউদ্দিন মাতব্বরকে মারধর করতে দেখে এগিয়ে যাই। পেছন থেকে কেউ আমার ঘাড়ের উপর আঘাত করে।

অভিযুক্ত নাজিম উদ্দিন তালুকদারের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে প্রথমে তিনি কথা বলতে রাজি হননি। পরে তিনি বলেন, ঘটনাস্থলে সাংবাদিক ছিল, সেই বিষয়টি ভালো বলতে পারবে। এই বলে তিনি মটর সাইকেল চালিয়ে দ্রুত চলে যান।

ভেদরগঞ্জ থানার ভারপ্রপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, নারায়ণপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যনকে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। তিনি বর্তমান চেয়ারম্যান নাজিমউদ্দিন তালুকদারসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।

ইত্তেফাক/আরএ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
০৪ জুন, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন