বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০, ২২ আষাঢ় ১৪২৭
৩১ °সে

ম্যাংগো ট্রেনের যাত্রা শুরু

ম্যাংগো ট্রেনের যাত্রা শুরু
রাজশাহী রেল স্টেশনে পতাকা উড়িয়ে ট্রেনটি উদ্বোধন করেন রাসিক মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন—ইত্তেফাক

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী-ঢাকা রুটে পার্সেল ট্রেন ‘ম্যাঙ্গো স্পেশাল’-এর যাত্রা শুরু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকাল ৫টা ৫০ মিনিটে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে এই ট্রেনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। অনুষ্ঠানে রাজশাহীর জেলা প্রশাসক হামিদুল হক, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মিহির কান্তি গুহ, সিওপিএম শহিদুল ইসলাম, সিসিএম আহসান উল্লাহ, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, রেলওয়ে শ্রমিক লীগ আরবিআর সদর দপ্তরের সভাপতি মোতাহার হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান, ওপেন লাইন শাখার সভাপতি জহুরুল হক, সাধারণ সম্পাদক এম আক্তার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, উত্পাদনকারীরা যাতে ভালো দাম পান এবং ঢাকাবাসী যাতে ভালো আম খেতে পারে, সে জন্যই এই উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আম ছাড়াও সব ধরনের শাকসবজি, ফলমূল, ডিমসহ কৃষিজাত পণ্য ঢাকায় স্বল্প খরচে নিয়ে যেতে পারবেন কৃষকেরা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার মানুষকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা ও উত্সাহ প্রদান করে আসছে। এই ট্রেনের চাহিদা বজায় থাকলে আমের মৌসুম ছাড়াও স্থায়ীভাবে চলাচল করার ব্যবস্থা করা হবে।

রেলওয়ের সূত্র জানায়, চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ঢাকায় যাত্রাপথে ট্রেনটির নাম হবে ‘ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন-২’। আর ঢাকা থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ফেরার পথে নাম হবে ‘ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন-১’। ট্রেনটি প্রতিদিন চলাচল করবে। প্রতিদিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে বিকাল ৪টায় ছেড়ে রাজশাহী রেলস্টেশনে পৌঁছাবে ৫টা ২০ মিনিটে। এখানে ৩০ মিনিট বিরতি দিয়ে বিকাল ৫টা ৫০ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করবে। ট্রেনটি ঢাকায় পৌঁছাবে রাত ১টায়। ঢাকা থেকে ট্রেনটি রাত ২টা ১৫ মিনিটে ছেড়ে রাজশাহী পৌঁছাবে সকাল ৮টা ৩৫ মিনিটে। এখানে ২০ মিনিট থেমে ট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। পৌঁছাবে সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে। ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেনটিতে ছয়টি ওয়াগন (মালগাড়ি) থাকবে। প্রতিটি ওয়াগনে ৪৫ হাজার কেজি আম পরিবহন করা যাবে। আম ছাড়াও সব ধরনের শাকসবজি, ফলমূল, ডিমসহ কৃষিজাত পণ্য রেলওয়ের আইনে পার্সেল হিসেবে বহনযোগ্য সব ধরনের মালামাল বহন করা হবে। ট্রেনটিতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে এক কেজি আমের ভাড়া লাগবে ১ টাকা ৩০ পয়সা। আর রাজশাহী রেলস্টেশন থেকে এক কেজি আম ঢাকার বিমানবন্দর, তেজগাঁও বা কমলাপুর রেলস্টেশনে পরিবহন করতে খরচ পড়বে ১ টাকা ১৮ পয়সা। এছাড়া নিয়মানুযায়ী ট্রেন ছাড়ার আগে যে কেউ তাদের মালামাল বুকিং দিতে পারবেন।

ইত্তেফাক/কেকে

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত