বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০, ২৯ আষাঢ় ১৪২৭
২৮ °সে

জমি নিয়ে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ যুবকের মৃত্যু

জমি নিয়ে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ যুবকের মৃত্যু
ফাইল ছবি

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার সেনেরচর ইউনিয়নে রিয়াজ মাদবর (১৭) নামে এক কিশোরকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় এলাকার জমি নিয়ে ভোলাই মুন্সিকান্দি গ্রামে সংঘর্ষের সময় সে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়। ওই কিশোর চরধুপুর মালাই মাদবরকান্দি গ্রামের লিটন মাতব্বরের ছেলে। এছাড়া ওই সংঘর্ষের সময় আরো চার ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

দীর্ঘদিনের এলাকার আধিপত্য বিস্তার ও জমি সংক্রান্ত দ্বন্দ্ব নিয়ে ভোলাই মুন্সিকান্দি গ্রামের মন্টু ব্যাপারী ও এমদাদ মাতব্বরের সমর্থকরা এ সংঘর্ষে জড়িয়ে পরেন।

জাজিরা থানা সূত্র জানায়, সেনেরচর ইউনিয়নের ভোলাই মুন্সিকান্দি গ্রামের মন্টু ব্যাপারী ও এমদাদ মাতব্বদের মধ্যে এলাকার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলছিল। প্রায়ই তাদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তবে এইবার জমি সংক্রান্ত দ্বন্দ্বে ওই দুই পক্ষের সংঘর্ষ হয়। এছাড়া সমর্থকদের বিরুদ্ধে জাজিরা থানায় অন্তত ২০টি মামলা রয়েছে। তারা দুজন স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। তবে তারা দলীয় কোন পদে নেই। মন্টু ব্যাপারী জাজিরা উপজেলা চেয়ারম্যান মোবারক আলী সিকদারের সমর্থক আর এমদাদ মাতব্বর সাবেক সাংসদ ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হকের সমর্থক।

শনিবার বিকালে ভোলাই মাদবরকান্দি গ্রামে দুপক্ষের সংঘর্ষ শুরু হয়। দুঘণ্টা ব্যাপি সংঘর্ষের সময় রিয়াজ মাতব্বর (১৭), দেলোয়ার মাতব্বর (৫৫), আবুল বাশার ব্যাপারী (৬৫), তানজিম আলম (২৩) ও রিমান মাতব্ববর (২৮) গুলিবিদ্ধ হন। তাদের উদ্ধার করে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক রিয়াজ মাদবরকে মৃত ঘোষণা করেন। অন্য চার ব্যক্তির অবস্থা সংকটাপন্ন হলে তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। নিহত রিয়াজ ও এমদাদের সমর্থক। এছাড়া ওই সংঘর্ষের সময় দুপক্ষের আরো ২০ ব্যক্তি আহত হয়েছেন।

রিয়াজের বাবা লিটন বলেন, আমরা গরিব মানুষ। ছোট ছেলেটা অভাবের কারণে পড়ালেখা করতে পারল না। কি অপরাধ ছিল আমার ছেলেটার, যে তাকে গুলি করে হত্যা করতে হবে? তার হত্যাকারী মন্টু ব্যাপারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজহারুল ইসলাম, সেনেরচর ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামে বিভিন্ন কারণে মন্টু ব্যাপারী ও এমদাদ মাতব্বরের মধ্য দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলছে। বিভিন্ন সময় সংঘর্ষের ঘটনায় দুপক্ষের বিরুদ্ধে অন্তত ২০টি মামলা রয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার বিকালে জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে সংঘর্ষ ঘটে। সেখানে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক তরুণ মারা যান। মন্টু ব্যাপারী ও এমদাদ মাতব্বর স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। এ ঘটনায় এখনো থানায় কোন লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

ইত্তেফাক/আরকেজি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত