বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭
২৯ °সে

হাতীবান্ধায় শুরু হয়েছে নদী ভাঙন

হাতীবান্ধায় শুরু হয়েছে নদী ভাঙন
হাতীবান্ধায় তিস্তা নদীর পানি কমে যাওয়ায় দেখা দিয়েছে নদী ভাঙন : ইত্তেফাক

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় তিস্তা নদীর পানি কমে যাওয়ায় দেখা দিয়েছে নদী ভাঙন। ভাঙনের ফলে নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে বসতবাড়ি, ফসলি জমিসহ নানা স্থাপনা। এলাকার মানুষ ত্রাণ নয় চায় এর স্থায়ী সমাধান।

জানা গেছে, তিস্তায় প্রতি বছরের ন্যায় এবারো দ্বিতীয় দফায় পানি বৃদ্ধি পেয়ে বন্যা দেখা দেয়। বর্তমানে তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যার পানি কমে যাওয়ায় শুরু হয়েছে নদী ভাঙন। হাতীবান্ধায় তিস্তা ও সানিয়াজান নদীর ভাঙনে একদিনে শতাধিক বাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এবার নতুন ভাবে ভাঙন শুরু হয়েছে সানিয়াজান তীরবর্তী রমনীগঞ্চ ও দালালপাড়া গ্রামে।

নদী ভাঙনের শিকার ভুক্তভোগীরা বলেন, প্রতি বছর নদী ভাঙনে বিলীন হয়ে যায় বসত ভিটে। আমরা ত্রাণ নয় এর স্থায়ী সমাধান হিসেবে নদীর বাঁধ চাই। সবাই শুধু আশ্বাস দেয় কিন্তু কাজের কিছুই হয় না।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা উপজেলা ত্রাণ ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) ফেরদৌস আলম বলেন, আমরা ফকিরপাড়া ইউনিয়নের ৯টি নদী ভাঙন পরিবারের খবর পেয়েছি। তাদের জন্য ৫ হাজার টাকার ও ২০ কেজি করে চাল বরাদ্দ এসেছে তা বিতরণ করা হবে। বাকি ইউনিয়নগুলো এখনো তালিকা দেয়নি।

হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সামিউল আমিন বলেন, খবর পেয়ে ভাঙন এলাকা গিয়ে খোঁজ নেওয়া হয়েছে। তাদের জন্য ৫ হাজার টাকা ও ২০ কেজি করে চাল বরাদ্দ এসেছে তা বিতরণ করা হবে।

ইত্তেফাক/এমআরএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত