বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭
৩২ °সে

লক্ষ্মীপুরে ব্যবসায়ীদের গুদাম থেকে সরকারি ১২৫ টন চাল-গম জব্দ

সিরাজগঞ্জে জব্দ ২৮ বস্তা চাল
লক্ষ্মীপুরে ব্যবসায়ীদের গুদাম থেকে সরকারি ১২৫ টন চাল-গম জব্দ
লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলায় চার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের গুদাম থেকে ১২৫ টন সরকারি চাল-গম জব্দ। ছবি : ইত্তেফাক

গত বৃহস্পতিবার লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলায় চার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের গুদাম থেকে ১২৫ টন সরকারি চাল-গম জব্দ এবং গতকাল শুক্রবার সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার এক ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে ২৮ বস্তা ভিজিডির চাল জব্দ করা হয়েছে।

কমলনগর (লক্ষ্মীপুর) সংবাদদাতা জানান, গত বৃহস্পতিবার লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে উপজেলা প্রশাসন, জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা (এনএসআই) ও উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের কার্যালয় যৌথভাবে চার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের গুদামে অভিযান চালিয়ে ১০১ মেট্রিক টন সরকারি চাল ও ২৫ মেট্রিক টন গম জব্দ করেছে। এ সময় নাহিদ ট্রেডার্স নামে একটি প্রতিষ্ঠানের অন্যতম মালিক মিজানুর রহমানকে আটক করে পুলিশে হস্তান্তর করা হয়। এ ব্যাপারে গতকাল শুক্রবার উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বাদী হয়ে নাহিদ ট্রেডার্সের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে রাত অবধি চলা এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন কমলনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোবারক হোসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন এনএসআই এর উপপরিচালক (লক্ষ্মীপুর) মানিক দে এবং উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক রাজীব চন্দ্র রায়। মেসার্স আলতাফ রাইছ এজেন্সির ২টি এবং নাহিদ ট্রেডার্স ও মেসার্স রণি ট্রেডার্সের ২টি গুদামে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। পরে ৪টি গুদামই সিলগালা করে প্রশাসন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই জানান, কমলনগরের একমাত্র চালের মিলের মালিক মেসার্স আলতাফ রাইস এজেন্সি, তাই প্রতি বছর সরকারের ক্রয়কৃত চালের একমাত্র সরবরাহকারীও তারা। কিন্তু ঐ চাল কখনোই তারা তাদের মিল থেকে সরবরাহ করে না। সমস্ত চালই তারা প্রশাসনের নাকের ডগার সামনে দিয়ে কালোবাজারিদের নিকট থেকে সংগ্রহ করে সরকারি গুদামে বিক্রি করে। অর্থাত্ সরকারি চাল কম দরে কিনে মৌসুম এলেই বেশি দরে সরকারের কাছেই তা বিক্রি করে। আলতাফ রাইস এজেন্সির পরিচালক শেখ ফরিদ বলেন, এ চালগুলো কাবিখা প্রকল্পের। আমরা প্রকল্পের পিআইসিদের নিকট থেকেই তা ক্রয় করেছি। উল্লেখ্য, উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তার অফিস জানায়, এ বছর কাবিখা প্রকল্পে চাল বরাদ্দ হয়েছে ১৪৯ মেট্রিক টন ও গম ৮০ মেট্রিক টন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোবারক হোসেন বলেন, জব্দকৃত চাল এবং গম কোন প্রকল্পের তা সঠিকভাবে বলা না গেলেও এটা সত্য, এগুলো সরকারি গুদামের চাল-গম, কারণ প্রতি বস্তায় সরকারি সিল রয়েছে। জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সাহেদ উদ্দীন আহম্মদ বলেন, চাল যে প্রকল্পেরই হোক কোন সরকারি চাল ব্যক্তিগত গুদামে মজুত করা যাবে না।

সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে জব্দ ২৮ বস্তা ভিজিডি চাল

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল সকালে পুলিশ কাজিপুর উপজেলার নাটুয়াপাড়ার চাল ব্যবসায়ী আমিনুল মণ্ডলের বাড়ি থেকে ২৮ বস্তা ভিজিডির চাল জব্দ করে। এ সময়ে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আমিনুল পালিয়ে যায়।

নাটুয়াপাড়া থানার ওসি গৌতম কুমার মালী জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে শাস্তির আওতায় আনা হবে। এ বিষয়ে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদ হাসান সিদ্দিকী বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ইত্তেফাক/কেকে

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত