বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭
২৯ °সে
div>

ওসমানীনগরে নিজ বাড়িতে প্রবাসী বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

ওসমানীনগরে নিজ বাড়িতে প্রবাসী বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ
ওসমানীনগর পুলিশ স্টেশন। ছবি: সংগৃহীত

সিলেটের ওসমানীনগরে নিজ বাসা থেকে রহিমা বেগম আমিনা (৬৫) নামের এক যুক্তরাজ্য প্রবাসী বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার গেয়ালাবাজার ইউপির নিজ করনসী রোডের তেরহাতি এলাকার নিহতের নিজ বাসা থেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

নিহত রহিমা বেগম উপজেলার উমরপুর ইউপির কটালপুর গ্রামের মৃত আখলু মিয়ার স্ত্রী। তিনি গত ২ বছর ধরে যুক্তরাজ্য থেকে ফিরে গোয়ালাবাজারস্থ করনসী রোডের তেরহাতি এলাকায় নিজ মালিকানাধীন বাসায় একাই বসবাস করে আসছেন। তার তিন ছেলে ও এক মেয়ে যুক্তরাজ্যে বসবাস করেছেন।

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের ভাড়াটিয়া ইস্পাহানি কোম্পানীর ম্যানেজার আব্দুল কাইয়ুম ও একই কোম্পানীর ড্রাইভার খুরশেদ আলমকে পুলিশ আটক করেছে।

আরও পড়ুন: মঠবাড়িয়ায় ঘরের সিঁধ কেটে শিশুসহ তিনজন খুন, তদন্তে ঘটনাস্থলে চার এজেন্সি

পুলিশ ও নিহতের পারিবার সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার রাত থেকে যুক্তরাজ্য প্রবাসী রহিমা বেগমের ব্যক্তিগত ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি বন্ধ থাকায় তার আত্মীয়রা ফোনে রহিমার খোঁজ করেন। কোথাও তাকে না পেয়ে বৃহস্পতিবার রাতে এসে বাসাটি তালবদ্ধ দেখতে পান নিহত রহিমার ছোট ভাই আব্দুল কাদিরসহ অন্য স্বজনরা। বিষয়টি থানা পুলিশকে অবগত করা হলে মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে পুলিশ নিহতের স্বজনদের সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে বাসার তালা ভেঙ্গে রহিমা বেগমের রক্তাক্ত মৃত দেহ বাথ রুমে পড়ে থাকতে দেখেন।

সিলেটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন বলেন, প্রাথমিক তদন্তে স্পষ্ট খুনিরা নিহতের পূর্ব পরিচিত। নিহত রহিমা বেগমের বাসার আসবাবপত্রসহ কোনো জিনিসই খোয়া যায়নি। শুধু তার একটি মোবাইল ও টাকার ব্যাগটি পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে রহিমা বেগমকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে নিজ কক্ষে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করে বাথরুমে লাশ রেখে খুনিরা পালিয়ে গেছে। লাশ ময়না তদন্তেরর জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ইত্তেফাক/এসি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত