তালায় আওয়ামী লীগ নেতার ঘেরে বিষ দিয়ে মাছ নিধনের অভিযোগ 

তালায় আওয়ামী লীগ নেতার ঘেরে বিষ দিয়ে মাছ নিধনের অভিযোগ 
বিষ প্রয়োগের ফলে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ মরে ভেসে উঠতে দেখা গেছে [ছবি: ইত্তেফাক]

সাতক্ষীরার তালায় একটি মৎস্য ঘেরে বিষ প্রয়োগে কয়েক লক্ষ টাকার মাছ নিধনের অভিযোগ উঠেছে। বিষ প্রয়োগের ফলে সোমবার (৩ আগস্ট) সকালে মৎস্য ঘেরে বাগদা চিংড়ি, রুই, কাতলা, সিলভার কার্প, জাপানী পুঁটিসহ বিভিন্ন প্রজাতির কার্প জাতীয় মাছ মরে ভেসে উঠতে দেখা গেছে।

ঘটনাটি তালা উপজেলার খলিলনগর ইউনিয়নের নলতা বিলে। এতে ২০ থেকে ৩০ লক্ষ টাকার মাছের ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ঘের মালিক উপজেলার প্রসাদপুর গ্রামের সৈয়দ আলী গাজীর ছেলে আওয়ামী লীগনেতা জি এম গোলাম রসুল। খবর পেয়ে মৎস্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ও তালা থানা ওসি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ভুক্তভোগী ঘের মালিক জি এম গোলাম রসুল জানান, ঈদের দিন কর্মচারীরা ছুটিতে চলে গেলে তিনি এবং তার পার্শ্ববর্তী ঘের মালিক আ. করিম মোড়ল ঘেরে ছিলেন। শনিবার রাত সাড়ে তিনটার সময় জনৈক এক ব্যক্তিকে ঘেরের ভেড়ি দিয়ে হাটতে দেখেন তারা। পরদিন রবিবার সকালে সারা ঘেরে ভাসতে দেখা যায় মাছ। এ সময় তিনি বুঝতে পারেন তার ঘেরে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। রবিবার রাত থেকে মাছ মরা শুরু হয় এবং সোমবার সকাল পর্যন্ত ৯০ বিঘার মৎস্য ঘেরটি দেখা যায় সাদা আর সাদা। ছোট ধানি মাছ থেকে শুরু করে ২/৩ কেজি ওজনের মাছ মরে সাবাড় হয়ে গেছে বলে জানান তিনি। এ ঘটনায় তিনি সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

তালা উপজেলা মৎস্য সম্প্রসারণ কর্মকর্তা সত্যজিৎ সানা জানান, এমোনিয়া বাড়ার কারণে এমন দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এমোনিয়া সাধারণত অতিরিক্ত খাবার, অতিরিক্ত তাপমাত্রা, বিষক্রিয়া বা মাছের বর্জ্য থেকে হতে পারে। বিষক্রিয়া প্রয়োগ করা হয়েছে কিনা তা একমাত্র পরীক্ষা নিরীক্ষা ছাড়া বলা যাবে না।

তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল জানান, ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। অভিযোগ পেলে বিষয়টি তদন্ত করে দোষীর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ইত্তেফাক/এমআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত