কলেজশিক্ষক নিক্সন হত্যা: আদালতে প্রধান আসামির স্বীকারোক্তি, ফাঁসির দাবি শিক্ষক সমিতির

কলেজশিক্ষক নিক্সন হত্যা: আদালতে প্রধান আসামির স্বীকারোক্তি, ফাঁসির দাবি শিক্ষক সমিতির
টাঙ্গাইলের গোপালপুরে কলেজশিক্ষক নিক্সন হত্যায় শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা। ছবি: ইত্তেফাক

টাঙ্গাইলের গোপালপুরে কলেজশিক্ষক নিক্সন খুনের ঘটনায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন প্রধান আসামি সুমন। এ ঘটনায় পুলিশ ইতিমধ্যে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। মঙ্গলবার ধনবাড়ি থানা পুলিশ অভিযুক্তদের টাঙ্গাইলের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল্লাহ আল মাসুদের আদালতে হাজির করলে সমুন এ জবানবন্দি দেন। অভিযুক্ত অপর দুইজনকে চারদিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

কলেজশিক্ষক ও আওয়ামী লীগে নেতা নিক্সন খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন- ছাত্রলীগ কর্মী এবং বেতাল আজগড়া গ্রামের শের আলীর ছেলে সুমন মিয়া, একই গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে সুজন এবং বন্দে আজগড়া গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে ফারুখ হোসেন। গত রবিবার রাতে পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে এবং আরও ৪/৫ জনকে অজ্ঞাতনামা হিসাবে আসামি করে ধনবাড়ী থানায় মামলা দায়ের হয়।

নিহতের পরিবারের দাবি, নিজ দলের সন্ত্রাসীদের হাতেই খুন হয়েছেন নিক্সন। হামলা ও হত্যা চেষ্টা মামলায় জেলহাজত থেকে জামিনে বেরিয়ে এসে সন্ত্রাসীরা পরিকল্পিতভাবে তাকে খুন করেছে।

আরও পড়ুন: ‘৮ মার্চের পর ইতালিতে অনুপ্রবেশকারীরা অবৈধ, ফেরত পাঠানো হবে নিজ দেশে’

মামলার বাদি মামুন তালুকদার জানান, মারা যাবার আগে তার বড় ভাই জবানবন্দিতে ছাত্রলীগ কর্মী সুজন ও সুমনের নাম বলে যান। খুনের নেপথ্যে দলীয় নেতাকর্মীদের ইন্ধন রয়েছে।

নিহত নিক্সনের স্ত্রী বিলকিশ বেগম অভিযোগ করেন, দুই বছর আগেও দলীয় কোন্দলের কারণে তার স্বামীর ওপর রামদা নিয়ে হামলা চালায় ছাত্রলীগ নামধারি সন্ত্রাসীরা। আহত হলেও সে সময় তিনি প্রাণে বাঁচেন। ওই ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় ৬ মাস জেল হাজতে ছিলেন সুমন।

এদিকে নিক্সন হত্যাকারিদের ফাঁসির দাবিতে মঙ্গলবার বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি টাঙ্গাইল জেলা শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে এক মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করেন। এতে সভাপতিত্ব করেন বাকশিসের সভাপতি অধ্যাপক আজাহারুল ইসলাম মিয়া। বক্তরা অভিযুক্তদের ফাাঁসির দাবি জানিয়েছেন।

ইত্তেফাক/এসি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত