বাকেরগঞ্জে দুই বিঘা জমির ফলের গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

বাকেরগঞ্জে দুই বিঘা জমির ফলের গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা
[ছবি: ইত্তেফাক]

বরিশালের বাকেরগঞ্জে দুই বিঘা জমির বিভিন্ন প্রজাতির সবুজ শাকসবজি ও ফলের গাছ কেটে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়েছে এবং তিনটি মাছের ঘেরের মাছ নালা কেটে খয়রাবাদ নদীতে বের করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

বৃহস্পতিবার (৬আগস্ট) বিকালে নলছিটি থানার কয়া মৌজা সংলগ্ন বাকেরগঞ্জ থানাধীন চরাদি ইউনিয়নের ছাগলদি মৌজায় এ ঘটনা ঘটে।

সরেজমিনে জানা যায়, স্থানীয় কৃষক ইয়াকুব আলী খান, নাসির মল্লিক ও খোকন মল্লিক কয়েক বছর ধরে উক্ত নিজস্ব জমিতে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য বিভিন্ন শাক সবজির চাষ করতেন এবং বিভিন্ন জাতের কয়েক হাজার ফলদ বৃক্ষ লাগিয়েছিলেন এবং সংশ্লিষ্ট জমিতে তিনটি মাছের ঘের করে কয়েক প্রজাতির মাছের পোনা ছেড়েছিলেন যেগুলো দুর্বৃত্তরা এসে ধ্বংস করে দিয়ে গেছে।

এ ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক ইয়াকুব আলী খান বলেন, আমরা এ জমি চাষ ও মাছের ঘের করতে বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ১২ লক্ষ টাকা লোন নিয়ে ও নিজস্ব পূঁজি ১৫ লক্ষ টাকা এখানে খাটিয়ে মোটামুটি একটা লাভের পর্যায় নিয়ে এসেছিলাম কিন্তু দুর্বৃত্তরা এসে কিছুক্ষণের মধ্যে আমাদের পথে বসিয়ে দিল।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক নাসির মল্লিক বলেন, আমরা সাত-আটজন ঘেরে কাজ করে যখন দুপুরের খানা খেতে বাড়ীর দিকে রওয়ানা দেই তখন স্থানীয় ফারুক হোসেন তার বাড়ীর প্রায় চল্লিশ-পঞ্চাশ জন দেশীয় দা, রামদা, কোদাল, শাবল নিয়ে ঘেরের দিকে এসে নিমিষেই সব কিছু কেটে লণ্ডভণ্ড করে চলে যায়, আমরা সবকিছু দেখলেও তারা সংখ্যায় অনেক থাকার কারণে প্রতিহত করার সাহস পাইনি।

এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে অভিযুক্ত ফারুক হোসেন জানান, স্থানীয় কৃষকরা একত্রিত হয়ে তাদের জমির আগাছা পরিষ্কার করেছে। এ ব্যাপারে আমার করনীয় কিছুই ছিলনা।

বাকেরগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম জানান,আমি অভিযোগ পেয়েছি চরামদ্দি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই ইকবালকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে ঘটনার সত্যতা পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ইত্তেফাক/এমআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত