গহবধূকে ধর্ষণের পর সালিশে মারপিট, গ্রেফতার ১

গহবধূকে ধর্ষণের পর সালিশে মারপিট, গ্রেফতার ১
লোহাগড়া পুলিশ স্টেশন, নড়াইল। ছবি: সংগৃহীত

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার কুমড়ি গ্রামে এক গৃহবধূকে ধর্ষণ ও মারপিটের ঘটনায় মামলা দায়েরর পর একেজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার সকালে কুমড়ি গ্রামে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক রিপন মোল্যাকে গ্রেফতার করে।

পুলিশ জানায়, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূর বাবা বাদি হয়ে তিনজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৪/৫ জনকে অভিযুক্ত করে শনিবার রাতে মামলা দায়ের করেন। মামলার উল্লেখযোগ্য অভিযুক্তরা হলেন- কুমড়ি গ্রামের মৃত সবদার মোল্যার ছেলে রিপন মোল্যা (৩৫), মৃত মওলা মোল্যার ছেলে ওহিদুল মোল্যা (২৯), তালবাড়িয়া গ্রামের আলিমুল মোল্যার ছেলে নুরনবী মোল্যা (২৫)। রিপনের নামে লোহাগড়া থানায় খুনসহ সাতটি মাদক ও অন্য মামলা রয়েছে। দশের অধিক মামলার আসামি রিপন।

এলাকাবাসী, পুলিশ ও ধর্ষণের শিকার নারীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কুমড়ি গ্রামের গৃহবধূ (২১) গত বুধবার সন্ধ্যায় বাড়ির পাশে পুকুরে হাত-পা ধুতে গেলে রিপন মোল্যা এবং ওহিদুল মোল্যা তাকে ধর্ষণ করে। পরে ধর্ষকসহ কুমড়ি গ্রামের প্রভাবশালী তুহিন শেখ ও কামাল মোল্যা সালিসের নামে ওই এলাকার জাকির (২৫), নুরুন্নবী (২৭), আশিক সিকদারসহ (২৫) কয়েকজনে ওই গৃহবধূকে মারপিট করে।

গৃহবধুর বাবা জানান, ঘটনার পর প্রভাবশালীরা আমাদের বাড়িতে অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে সুযোগ বুঝে গত শুক্রবার সকালে স্বপরিবারে পালিয়ে এসে নড়াইল সদর হাসপাতালে মেয়েকে ভর্তি করি।

লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আশিকুর রহমান জানান, প্রধান অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

ইত্তেফাক/এসি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত