বন্যা-নদী ভাঙন ও করোনা মোকাবিলায় মাদারীপুরের সম্মুখ সমরের আলোচিত যোদ্ধাগণ

বন্যা-নদী ভাঙন ও করোনা মোকাবিলায় মাদারীপুরের সম্মুখ সমরের আলোচিত যোদ্ধাগণ
বন্যা-নদী ভাঙ্গন ও করোনা মোকাবিলায় মাদারীপুরের সম্মুখ সমরের আলোচিত যোদ্ধাগণ।ছবি: ইত্তেফাক

দিন নেই, রাত নেই, নেই রোদ, বৃষ্টি, ঝড় ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ। যখনই খবর পাচ্ছেন ছুটে চলেছেন বন্যা, নদী ভাঙন ও করোনা মোকাবিলায় জীবনের ওপর ঝুঁকি নিয়ে দিন রাত একপ্রান্ত থেকে অপর প্রান্ত পর্যন্ত নিরলসভাবে ছুটে চলে মানবিক কাজ করছেন মাদারীপুর জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, মাদারীপুর জেলা-উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন এবং সাংবাদিকগণ।

নিরলসভাবে ছুটে চলে মানবিক কাজ করা ব্যক্তিরা হলেন-মাদারীপুরের নবাগত জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন, মাদারীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান, মাদারীপুরের এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. বাবুল আখতার, মাদারীপুরের পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পার্থ প্রতিম সাহা, মাদারীপুরের সিভিল সার্জন ডা. মো. সফিকুল ইসলাম, মাদারীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. সাইফুদ্দিন গিয়াস, শিবচর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আসাদুজ্জামান, কালকিনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আলমগীর হোসেন, রাজৈর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সোহানা নাসরিন, শিবচর উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি এম রাকিবুল হাসান, মাদারীপুর সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হোসনে আরা তান্নি, শিবচর এলজিইডি’র উপজেলা প্রকৌশলী মো. ইকবাল হোসেন, মাদারীপুর সহকারী সিনিয়র পুলিশ সুপার (শিবচর-রাজৈর সার্কেল) মো. আবির হোসেন, শিবচর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম আজাদ, মাদারীপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. কামরুল ইসলাম মিঞা, রাজৈর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ সাদিক, কালকিনি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নাছির উদ্দিন মৃধা, ডাসার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল ওহাব, মাদারীপুর জেলা-উপজেলা প্রিন্ট ও ইলেক্টনিক মিডিয়ার বিশিষ্ট সাংবাদিক প্রণব কুমার সাহা অপূর্বসহ জেলা-উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও আরও অনেকেই।

আরও পড়ুন: কোভিড-১৯ মোকাবিলায় ঢাকাস্থ যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের পক্ষ থেকে কারা সদর দপ্তরকে সরঞ্জাম প্রদান

সম্মুখ সমরের আলোচিত যোদ্ধাগণ এলাকায় মাইকিং করে বলছেন-করোনাকালীন দুর্যোগের সময় আপনারা নিরাপদে নিজ নিজ ঘরে থাকুন, আমরা আপনাদের পাশে থেকে সার্বিক সহযোগিতা করে খাবার বাড়ি পৌঁছে দিবো। নিজে নিরাপদ থাকুন, পরিবারকে নিরাপদ রাখুন। করোনার মধ্যে নতুন করে যোগ হয়েছে প্রাকৃতিক বন্যা ও নদী ভাঙন। তারপরও তারা বসে নেই। দিন-রাত ছুটে চলেছেন এ প্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে।

এছাড়াও জেলা-উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন করোনা শুরু থেকেই মাদারীপুর জেলায় জনগণকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলার জন্য গণজাগরণ সৃষ্টি করে। করোনায় আক্রান্তদের বাড়ি বাড়ি খাবার পৌঁছে দেওয়া, ঔষধপত্র দেওয়া, লগডাউনে থাকা পরিবারের সদস্যদের খাবার বিতরণ, করোনায় আক্রান্তদের জন্য আইসোলেশনের ব্যবস্থা করা, শিশু খাদ্য বিতরণ, কর্মহীন ও দরিদ্রদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ, নিয়মিত বাজার মনিটরিং করা, মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা, ভিআইপিদের প্রটোকল দেওয়া, নিয়মিত অফিসের কাজ করাসহ করোনার মত মহামারি দুর্যোগের সময় ঝুঁকি মাথায় নিয়ে দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছে।

করোনার মধ্যে নতুন করে যোগ হয়েছে প্রাকৃতিক বন্যা ও নদী ভাঙন। মাদারীপুরের নবাগত জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন ও মাদারীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি জনগণের পাশে থেকে সর্বোচ্চ সেবা ও সহযোগিতা করা।’

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত