শীতলক্ষ্যায় প্রতিপক্ষ কিশোরদের ধাওয়ায় ২ কিশোর নিখোঁজ

 শীতলক্ষ্যায় প্রতিপক্ষ কিশোরদের ধাওয়ায় ২ কিশোর নিখোঁজ
 শীতলক্ষ্যা নদী [ফাইল ছবি]

বন্দরের একরামপুর ইস্পাহানী ঘাটে প্রতিপক্ষের ধাওয়ায় সোমবার (১০ জুলাই) দুইজন স্কুল ছাত্র শীতলক্ষ্যা নদীতে আত্মরক্ষার্থে ঝাপ দেয়ার পর থেকে তারা নিখোঁজ রয়েছে। রাত ১১টা পর্যন্ত এদের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

ঘটনাস্থলে থাকা বন্দর থানার ওসি ফখরুদ্দিন জানান, ঘটনার পর পরই তিনি এসে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলেও ডুবুরীরা রাতের বেলায় কাজ করেন না এই অজুহাতে ফায়ার সার্ভিসের কেহ ঘটনাস্থলে আসেননি।

নিখোঁজ স্কুল ছাত্রদের স্বজনরা জানান, সোমবার বিকালে বন্দর খানবাড়ি এলাকার নিখোঁজ জিসান ও নিহালের সাথে বন্দর একরামপুর এলাকার অন্য কিশোরদের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে একরামপুর এলাকার কিশোররা খানবাড়ি এলাকার কিশোরদের ধাওয়া দিলে তারা নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে। একপর্যায়ে অন্যরা সাঁতরিয়ে তীরে উঠলেও জিসান ও নিহাল তীরে উঠতে পারেনি।

খবর পেয়ে বন্দর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তল্লাশি শুরু করে। এক পর্যায়ে তারা ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতা চেয়েও পায়নি।

নিখোঁজ জিসান স্থানীয় সাংবাদিক কাজিম উদ্দিনের ছেলে। নিহাল বন্দর খান বাড়ি এলাকার নাজিম উদ্দিনের ছেলে। নিখোঁজ কিশোররা বন্দর বিএম ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্র বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, বিকেলে ওই ঘাট দিয়ে বন্দর থেকে বন্ধুদের সংগে আসে জিসান এবং নিহাল একদল কিশোরের সাথে এ দুইজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষ কিশোররা তাদের ধাওয়া দিলে তারা দৌড়ে ঘাটে গিয়ে নৌকায় উঠে। এখানেও এ কিশোরা এলে তারা নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে। পরে সবাই সাতরে তীরে উঠলো সাতার না জানায় জিসান ও নিহাল নদীতে নিখোঁজ হয়ে যায়।

রাত ১১ টায় বন্দর থানার ওসি ফখরুদ্দিন জানান, জিসান ও নিহালের সন্ধান এখনো পাওয়া যায়নি। তবে তল্লাশি অব্যাহত রয়েছে।

ইত্তেফাক/এমআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত