গ্রিসে দুর্বৃত্তদের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত

স্বজনদের শোকের মাতম #লাশ দেশে আনতে সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা
গ্রিসে দুর্বৃত্তদের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত
আব্দুল মমিন ও শাহীন মিয়া ।ছবি: সংগৃহীত

গ্রিসে দুর্বৃত্তদের গুলিতে দুই প্রবাসী বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। গত মঙ্গলবার গ্রিসের রাজধানী এথেন্সের আসপোগিরগো এলাকায় স্থানীয় সময় সকাল ১১টার দিকে গুলিবিদ্ধ মরদেহগুলো উদ্ধার করে গ্রিস পুলিশ। নিহত আব্দুল মমিন ও শাহীন মিয়া দু‘জনই হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার কামড়াখাই গ্রামের বাসিন্দা। এ হত্যাকাণ্ডের খবর পাওয়ার পর থেকেই নিহতদের বাড়ির সদস্য ও স্বজনদের চলছে শোকের মাতম। দুই র‌্যামিটেন্স যোদ্ধার পরিবারের লোকজন অপেক্ষা করছেন কখন তাদের লাশ বাড়ি ফিরবে।

জানা গেছে, ওই গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে আব্দুল মমিন (৪০) ও একই গ্রামের নূর হোসেনের ছেলে শাহীন মিয়া (২৫) কয়েক বছর আগে গ্রিসে যান। নিহত আব্দুল মমিন প্রায় ১০ বছর ধরে গ্রিসে বসবাস করছেন। আর প্রায় ২ বছর পূর্বে সেখানে যান শাহীন। সেখানের আসপোগিরগো এলাকায় একটি কন্টেইনার কোম্পানিতে পাহারাদার হিসেবে কর্মরত ছিলেন আব্দুল মমিন। একই গ্রামের বাসিন্দা হওযায় মমিনের কর্মস্থলে যোগ দেন শাহীনও। মঙ্গলবার রাতের কোন এক সময় দুর্বৃত্তরা একজনের মাথায় এবং অন্যজনের গলায় গুলি করে হত্যা করে। পরদিন সকালে স্থানীয়রা দুই মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন।

সেখানে বসবাসরত হবিগঞ্জ জেলা এসোসিয়েশন ইন গ্রিসের সভাপতি শফিক মিয়ার উদ্ধৃতি দিয়ে নিহতদের পরিবারের সদস্যরা জানান, দু’টি কন্টেইনার ছিনতাইর প্রস্তুতি নেয় দুর্বৃত্তরা। এ সময় মমিন ও শাহীন বাঁধা দিলে দুর্র্বত্তরা তাদেরকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে । ঘটনাস্থলেই তারা মারা যান। এনিয়ে পুলিশ তদন্তে নেমেছে। মরদেহগুলো বাংলাদেশে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

নিহত আব্দুল মমিনের ২ ছেলে ১ মেয়ে। বড় ছেলে রায়হান (১৯) বাবা হত্যার বিচার দাবি করে তার লাশ দেশে আনার জন্য সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহি উদ্দিন জানান, খবরটি শুনেছি, লাশ দেশে ফেরাতে সরকারিভাবে যা কিছু করতে হয় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ইত্তেফাক/বিএএফ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত