নরসিংদী ও ঈশ্বরদীতে দুর্গাপূজায় তিনদিনের সরকারি ছুটির দাবি

নরসিংদী ও ঈশ্বরদীতে দুর্গাপূজায় তিনদিনের সরকারি ছুটির দাবি
নরসিংদী ও ঈশ্বরদীতে দুর্গাপূজায় তিনদিনের সরকারি ছুটির দাবি মানববন্ধন।

শরদীয় দুর্গাপূজায় তিন দিনের সরকারি ছুটির দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে নরসিংদী ও ঈশ্বরদীতে মানববন্ধন করেছে জেলা ও শহর হিন্দু মহাজোট।

নরসিংদীতে শুক্রবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ঘণ্টাব্যাপী নরসিংদী প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে নরসিংদী জেলা হিন্দু মহাজোট, নরসিংদী শহর হিন্দু মহাজোট, রায়পুরা, শিবপুর, মনোহরদী, পলাশ, বেলাব উপজেলা ও মাধবদী থানার হিন্দু মহাজোটের নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা অংশগ্রহণ করেন।

জেলা হিন্দু মহাজোটের সভাপতি অজয় ভৌমিকের সভাপতিত্বে এবং নরসিংদী শহর হিন্দু মহাজোটের সাধারণ সম্পাদক তন্ময় দাস তনুর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন- জেলা যুবলীগের সভাপতি বিজয় কৃষ্ণ গোস্বামী, জেলা হিন্দু মহাজোটের সাধারণ সম্পাদক অপু সাহা, নরসিংদী জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুব্রত দাস, শহর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বিনয় সাহা, শহর হিন্দু মহাজোটের সভাপতি উত্তম সাহা প্রমুখ।

অপরদিকে শারদীয় দুর্গাপূজায় তিনদিনের সরকারি ছুটিরর দাবিতে ঈশ^রদীতে মানববন্ধন ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার জাতীয় হিন্দু মহাজোট ঈশ^রদী উপজেলা কমিটির আয়োজনে ঈশ^রদী প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে এই মানববন্ধন ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়।

পথসভায় সভাপতিত্ব করেন মহাজোটের উপজেলা সভাপতি আশুতোষ পাল। বক্তব্য রাখেন- ঈশ্বরদী প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বপন কুমার কু-ু, প্জূা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুনিল চক্রবর্তী, সাধারণ সম্পাদক গনেশ সরকার, হিন্দু বৌদ্ধ খৃস্টান ঐক্য পরিষদের উমা শংকর বাবু পান্ডে, পার্থ দাস, পৌর শ্মশানের দিপু রায়, মহাজোটের সাধারণ সম্পাদক দেব দুলাল রায় প্রমূখ। সভা সঞ্চালনা করেন মহাজোটের উপজেলা সমন্বয়কারী গোপাল অধিকারী।

এসময় বক্তরা বলেন- ষষ্ঠি থেকে দশমী পর্যন্ত ৫ দিন দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়। অথচ সরকারি ছুটি দশমিতে মাত্র এক দিন। দশমিতে পূজা সমাপন হয়ে প্রতিমা বিসর্জন হয়। দশমিতে ছুটি থাকায় পূজা চলাকালীন সময়ে পুষ্পাঞ্জলি ও প্রার্থনার সুযোগ নেই। স্বাধীনতা উত্তর ও পরবর্তী সময়েও এই দেশে দুর্গাপূজায় একাধিক দিন ছুটির ব্যবস্থা ছিল।

ইত্তেফাক/এসি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত