মনিরামপুরে জমিজমার বিরোধে ভাতিজার লাথির আঘাতে চাচার মৃত্যু

মনিরামপুরে জমিজমার বিরোধে ভাতিজার লাথির আঘাতে চাচার মৃত্যু
ভাতিজার হাতে খুন হয়েছেন চাচা লউড়ী কামিল মাদ্রাসার অবসরপ্রাপ্ত প্রভাষক আঃ সাত্তার গোলদার।

যশোরের মনিরামপুরে পৈত্রিক জমির ভাগাভাগিকে কেন্দ্র করে ভাই ও ভাতিজার হাতে খুন হয়েছেন চাচা লউড়ী কামিল মাদ্রাসার অবসরপ্রাপ্ত প্রভাষক আঃ সাত্তার গোলদার (৬৮)। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শুক্রবার সন্ধায়। মনিরামপুর থানা পুলিশ এঘটনায় জড়িত নিহতের ভাতিজা পারভেজকে আটক করেছে। নিহত সাত্তার গোলদার উপজোলার গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত ইব্রাহীম গোলদারের মেঝ ছেলে।

নিহতের ভাই প্রভাষক জয়নাল জানান, শুক্রবার পৈত্রিক ভিটার জমির ভাগ বাটোয়ারাকে কেন্দ্র করে বাড়ীতে ভাই বোনদের উপস্থিতিতে সালিশে বসানো হয়। মীমাংশার শেষ সময়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সেজ ভাই হামিদ ও তার ছেলে পারভেজ, ছোট ভাই রোকনুজ্জামান মিলে সাত্তারকে কিল ঘুষি মারতে থাকে এক পর্যায়ে তার বুকে ভাতিজার লাথির আঘাতে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। সেখান থেকে তাকে সকলে উদ্ধার করে মনিরামপুর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহতের একমাত্র মেয়ে আসমা আক্তার সুমি জানান, চাচা ভাইপোরা মিলে আমার বাপকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করেছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

এঘটনায় পুলিশ পারভেজকে আটক করেছে। লাশ উদ্ধার করে যশোর মর্গে পাঠিয়েছে। সন্ধার পর সহঃ পুলিশ সুপার (মনিরামপুর সার্কেল) সোয়েব আহমেদ খান, ওসি (সার্বিক) রফিকুল ইসলাম, ওসি তদন্ত শিকদার মতিয়ার রহমান ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছেন।

ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ইত্তেফাক/আরকেজি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত