সিরাজগঞ্জে যমুনার পানি বৃদ্ধি,তলিয়ে যাচ্ছে ধানসহ নানা ফসল

সিরাজগঞ্জে যমুনার পানি বৃদ্ধি,তলিয়ে যাচ্ছে ধানসহ নানা ফসল
ফাইল ছবি।

টানা বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিরাজগঞ্জে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বিস্তীর্ণ নিম্ন এলাকার সব্জি, রোপা আমন, মাসকলাই, মরিচ,চিনা বাদাম তলিয়ে গেছে।

জেলার কাজীপুর, সদর, বেলকুচি, শাহজাদপুর, চৌহালী ও তাড়াশ উপজেলার বিস্তীর্ণ অঞ্চলে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় রোপা আমন ধান পানিতে তলিয়ে যায়। এতে ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন কৃষক।

সিরাজগঞ্জ কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নতুন করে যমুনায় পানি বৃদ্ধির কারণে সব্জি, মাসকলাই, মরিচ,চিনা বাদাম রোপা আমনসহ উঠতি ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে। পানি বাড়তে থাকায় আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন কৃষকরা। চরাঞ্চলের নিম্ন এলাকার প্রায় ৮০ ভাগ এই সব ফসলী জমি পানিতে তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় রয়েছেন তাঁরা।

যমুনার পানি দফায় দফায় বৃদ্ধি পাওয়ায় জেলার আউশ ও রোপা আমন ধানের ব্যাপক ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সরকারের পক্ষ থেকে ইতি মধ্যেই প্রণোদনা হিসেবে বন্যাকবলিত সাতটি উপজেলার এক হাজার ২৪৫ কৃষকের মধ্যে বীজ দেওয়া হয়।

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ রস্তুম আলী জানান, যমুনার পানি বৃদ্ধির ফলে সদর উপজেলার ৫৪৯ হেক্টর জমির সব্জি, রোপা আমন ধান, মাসকলাই, মরিচ ও চিনা বাদাম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ।

তিনি আরও জানান,এই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কৃষকদের পরেঙ্গধান ছিটিয়ে বোনার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। এছাড়া আগের কিছু বীজতলা রয়েছে যা থেকে কিছু চাহিদা মিটবে । এছাড়াও রয়েছে কৃষি প্রণোদনা ।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. আবু হানিফ বলেন, ‘জেলার বন্যাকবলিত উপজেলাগুলোতে পাঁচ হাজার কৃষকের মধ্যে এক বিঘা করে মাষকলাই, এক হাজার ২৪৫ কৃষকের মধ্যে রোপা আমন চারা ও ৮২টি ইউনিয়নের ৩২ জন কৃষকের মধ্যে সবজির চারা বিতরণ করা হয়েছে। কিন্তু হঠাৎ আবারও যমুনায় পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় অনেকের বীজতলা তলিয়ে গেছে। তবে আমরা প্রাকৃতিক এ দুর্যোগ মোকাবিলায় তৈরি রয়েছি।’

ইত্তেফাক/এমআরএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত